মদ আর গাঁজায় মেতে আছে সেই তরুণী

পরিবারের বিরুদ্ধে বিস্তর অভিযোগ এনে বিশ্বে হৈচৈ ফেলে দিয়েছেন সৌদি আরবের মেয়ে রাহাফ মোহাম্মেদ আল-কুনুন (১৮)। পরিবার থেকে পালিয়ে থাইল্যান্ডে গিয়েছিলেন। শেষ পর্যন্ত বহির্বিশ্বের হস্তক্ষেপে কানাডায় আশ্রয় নিয়েছেন তিনি। কানডায় গিয়েই রাহাফ তার ‘নতুন জীবনযাত্রার’ কিছু ছবি শেয়ার করেছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। তাতে দেখা গেছে মদ, শুকরের মাংস আর গাঁজা হয়ে উঠেছে তার জীবনসঙ্গী।

তাকে দেখা গেছে পশ্চিমা ধাঁচের পোশাক পরিহীত। গায়ে হাঁটু পর্যন্ত উলের পোশাক দেখা গেছে । গত মঙ্গলবার স্ন্যাপচ্যাটে কিছু ছবি শেয়ার করেছেন রাহাফ। এতে তিনি জীবনে প্রথম কানাডিয়ান স্টাইলে বেকন খাচ্ছেন (শূকরের হিমায়িত মাংস) বলে জানিয়েছেন।

এই ছবির সঙ্গেই তিনি মদ এবং সিগারেটের টুকরার ছবি দিয়ে সেগুলো দারুণ উপভোগ করছেন বলে জানিয়েছেন। কানাডায় সাধারণ এভাবে গাঁজা ভরে সিগারেট খাওয়া হয়। সম্প্রতি দেশটি গাঁজাকে বৈধতা দিয়েছে। বিভিন্ন প্রদেশের নিজস্ব রীতি মেনে ১৮/১৯ বছর বয়সী থেকে সবাই গাঁজা সেবন করতে পারেন।

সিগারেট খাওয়ার ও মদের ছবি শেয়ার করেছেন রাহাফ। একটি ছবিতে ক্যাপশন দিয়েছেন, মাইনাস ৮ ডিগ্রি তাপমাত্রায় বসে ‘বাষ্প’ উড়াচ্ছি।

পরিবারের বিরুদ্ধে নানান নির্যাতন আর নিপীড়নের অভিযোগ তুলে শেষ পর্যন্ত কানাডায় আশ্রয় পেয়েছে মেয়েটি। ইতোমধ্যে তার নতুন জীবনের এক সপ্তাহ পার হয়েছে। আর এই এক সপ্তাহ জীবনযাপনের চিত্রই পাওয়া গেছে তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করা ছবি ও অভিজ্ঞতায়।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Close