লেবার পার্টি হাজার হাজার সদস্যপদ স্থগিত করতে পারে

লেবার পার্টির ডেপুটি লিডার অ্যাঞ্জেলা রেইনার বলেছেন, লেবার পার্টি হাজার হাজার সদস্যকে সাসপেন্ড করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, যদি তারা ইহুদী বিরোধিতার ব্যাপারে বাস্তব হয়ে না ওঠেন। জেরেমি করবিনকে হুইপের পদ থেকে অপসারনের ফলে সৃষ্ট অভ্যন্তরীন বিতর্কের প্রেক্ষিতে তিনি এ সতর্কবানী উচ্চারণ করেছেন।
ইক্যুইটি হিউম্যান রাইটস্ কমিশন (ইএইচআরসি)-এর প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে মি: করবিনকে একজন লেবার এমপি হিসেবে বসতে না দেয়ার জন্য স্যার কেইর স্টার্মারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিক্রিয়া হিসেবে কয়েক ডজন সাংবিধানিক দল সাবেক নেতার সমর্থনে প্রস্তাব গ্রহণ করেছে, যদিও দলের জেনারেল সেক্রেটারি ডেভিড ইভান্স তাদেরকে এটা করতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন।
চলতি সপ্তাহের শুরুতে নটিংহ্যাম ইস্টে অনুষ্ঠিত এ ধরনের আলোচ্য বিষয় সম্বলিত এক সভায় জনৈক ইহুদী ক্ষুব্ধ হয়ে সভাস্থল ত্যাগ করেন বলে স্থানীয় এমপি নাদিয়া হুইটোম উল্লেখ করেন। পরে তিনি সভার পরিবেশ ও উদ্দেশ্য সম্পূর্ণ অগ্রহণযোগ্য বলে এক বিবৃতিতে বর্ণনা করেন। এ ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় ‘জিউয়িশ মোভমেন্টস্ ওয়ানডে’ সম্মেলনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে দলের ডেপুটি লিডার বলেন, আমরা লোকজনকে এটা জানাতে চাই যে, সদস্যপদ স্থগিতাদেশ রয়েছে এবং আমরা এর পক্ষে আছি। আমরা নাদিয়াকে সমর্থন করছি।
তিনি আরো বলেন, আমাদের এমপি’দের এ বিষয়ে বাস্তববাদী হওয়া দরকার, আমাদের লেবার সদস্যদের। যদি তারা লেবার পার্টিতে ইহুদী বিরোধিতা আছে বলে মনে না করেন, তবে সমস্যা রয়েছে। লেবার পার্টিতে আসলে তাদের কোন স্থান নেই।
জিউয়িশ লেবার মোভমেন্ট-এর সভাপতি মাইক কাটজ্ মিসেস রেইনারের ‘প্রশংসনীয় জোরালো বক্তব্য’কে স্বাগত জানিয়েছেন। তিনি বলেন, আমরা আসলেই এমন একটি অবস্থানে থাকতে চাই, যেখানে সদস্যপদ স্থগিতকরণের প্রয়োজন হবে না। আর বহিষ্কারের সাথে স্থগিতাদেশ পরবর্তী প্রতিশ্রুতি অবশ্যই থাকতে হবে, যাতে এটা বিদ্যমান ভঙ্গুর ও দলাদলিতে বিভক্ত প্রক্রিয়ার মধ্যে সম্পন্ন না হয়।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close