ব্রিটিশ সরকার আগামী ৬ মাস শ্রমিকদের মজুরীর ২২ শতাংশ পরিশোধ করবে

সরকার আগামী ৬ মাস ব্যাপী যথাযথ চাকুরীতে কর্মরত শ্রমিক কর্মীদের মজুরীর এক চতুর্থাংশ পর্যন্ত পরিশোধ করবে। ব্রিটিশ চ্যান্সেলর ঋষি সুনাক সম্প্রতি এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, তিনি একটি পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন, যা আগামী অক্টোবরের শেষ হয়ে যাওয়া ফারলো স্কিমের পরিবর্তে চালু হবে। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে নতুন বিধিনিষেধ আরোপ থেকে উদ্ভূত ব্যাপক বেকারত্ব মোকাবেলায় একটি সহায়তা প্যাকেজ হিসেবে এটা পরিকল্পিত।

ঋষি সুনাক বলেন, তিনি প্রতিদিনের স্বাধীনতাকে খর্ব করা চ্যালেঞ্জিং মনে করেন এবং এখন কিছু ঝুঁকির মধ্যে লোকজনের বসবাসের সময় এসেছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।
তিনি বলেন, এটা আমাদের সবার জন্য, আমাদেরকে অবশ্যই এর সাথে বসবাস করতে হবে এবং ভয়-ভীতির মধ্য দিয়েই বাস করতে হবে। চ্যান্সেলরের নতুন জব সাপোর্ট স্কিমে সুবিধা লাভের জন্য ব্রিটিশ শ্রমিকদের তাদের স্বাভাবিক কর্মঘন্টার কমপক্ষে এক তৃতীয়াংশ কাজ করতে হবে। তাদের নিয়োগকর্তারা ঘন্টার জন্য স্বাভাবিক মজুরি পরিশোধ করবেন।
প্রত্যেক শ্রমিকের নিয়ম মাফিক মজুরির অবশিষ্ট দুই-তৃতীয়াংশের মধ্যে নিয়োগকারী ৩৩ শতাংশ এবং সরকার ৩৩ শতাংশ পরিশোধ করবে, যার মানে হচ্ছে শ্রমিকরা তাদের মোট স্বাভাবিক মাসিক মজুরীর ৭৭ শতাংশ পাবে। সরকার দেবে ২২ শতাংশ, যা মাসিক সর্বোচ্চ ৬৯৭.৭২পাউন্ড।
ভাইরাসের পুনরুত্থান মোকাবেলায় এই পদক্ষেপ গ্রহণ আবশ্যক বলে সুনাক মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, লোকজনের এটা চাওয়া অন্যায় নয় এবং তাদের জন্য এটা চাওয়াও সরকারের অন্যায় নয়। গ্রীষ্মে আমি বলেছিলাম যে আমাদেরকে সহ্য করতে হবে এবং এ মুহূর্তের অনিশ্চয়তার সাথে আমাদের বাস করতে হবে।
সুনাক এমপিগণকে হুশিয়ার করে দিয়ে বলেন, আমরা সংকটের শুরুতে যা করেছিলাম সেই পর্যায়ের সহায়তা প্রদান অব্যাহত রাখা টেকসই কিংবা সাধ্য মতো নয় এবং ঘটনা এভাবেই চলতে থাকবে।
তিনি আরও বলেন, এটা হতে পারে না যে, আমরা এই পর্যায়ে চিরদিন ঋণ করতে থাকবো। আমাদেরকে অবশ্যই আমাদের ঋণ গ্রহণ কে নিয়ন্ত্রণে আনতে হবে এবং আমাদের ঋণ হ্রাস করতে হবে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close