২০২১ সাল পর্যন্ত ক্যামব্রিজ ইউনিভার্সিটির সকল লেকচার অনলাইনে দেয়া হবে

ব্রিটেনের ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় এই মর্মে নিশ্চিত করেছে যে, পরবর্তী শিক্ষাবর্ষে সকল ফেস-টু-ফেস অর্থাৎ মুখোমুখি লেকচারগুলো অনলাইনে প্রদান করা হবে। ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের জন্য এটা হবে প্রথম বিশ্ববিদ্যালয় যা এ ধরনের উদ্যোগ নিচ্ছে। সম্ভবত: সামাজিক দূরত্ব বজায় অব্যাহত রাখার জন্য এর প্রয়োজন হবে বলে প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে।
বিশ্ববিদ্যালয়টি বলেছে, লেকচারসমূহ ২০২১ সাল পর্যন্ত কার্যত: চলবে, তবে হয়তো ক্ষুদ্রতর টিচিং গ্রুপগুলো ব্যক্তিগতভাবে ক্লাশ করতে পারবে, যদি তা সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে করা সম্ভব হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের জনৈক মুখপাত্র বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় করোনা মহামারির সময়ে প্রয়োজন মাফিক পরিবর্তিত পরামর্শসমূহের সাথে খাপ খাওয়ানো অব্যাহত রেখেছে। তবে হয়তো অব্যাহতভাবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার আবশ্যকীয়তা থেকে যাবে,তাই বিশ্ববিদ্যালয়টি আগামী শিক্ষাবর্ষে কোন মুখোমুখি লেকচার প্রদান না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
তারা আরো জানায় লেকচারসমূহ অনলাইনে পাওয়ার ব্যবস্হা করা হবে এবং ব্যক্তিগতভাবে হয়তো ক্ষুদ্রতর
টিচিং গ্রুপের প্রয়োজন করা যাবে যতক্ষন তা সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার আবশ্যকীয়তা পূরণে সক্ষম হয়। পরিকল্পনা বাস্তবায়নের সুবিধার্থে এখন এই সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়েছে। তবে করোনাভাইরাস সংক্রান্ত সরকারী পরামর্শের পরিবর্তন হলে এক্ষেত্রেও পরিবর্তন করা হবে।
মার্চে বিশ্ববিদ্যালয়টির সকল শিক্ষাকে অনলাইনে স্হানান্তর করা হবে ,যেক্ষেত্রে পরীক্ষাসমূহ অনুষ্ঠিত হবে ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে। ইন্ডিপেন্ডেন্ট ক্যামব্রিজ স্টুডেন্ট নিউজ পেপার ‘ভার্সিটি’ প্রথম বিশ্ববিদ্যালয় পরিকল্পনাগুলো প্রকাশ করে।
শিক্ষার্থীরা নিউজ পেপার দেখে বলে,পরিকল্পনাগুলো সঠিকভাবে এটা নিশ্চিত করতে যাচ্ছে যে অনলাইনে লেকচার প্রদান সম্ভব সর্বোত্তম মানের হবে। উচ্চিশক্ষা পরিচালনার কাজে নিয়োজিত অফিস ফর দ্য স্টুডেন্টস (ওএফএস) কর্তৃক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে আহবান জানানোর পর এরুপ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।
ওএফএস শরৎকালে সবকিছু স্বাভাবিক হয়ে যাবে বলে শিক্ষার্থীদের কোন প্রতিশ্রুতি না দেয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর প্রতি আহবান জানায়। গত সোমবার ওএফএস-এর চীফ এক্সিকিউটিভ নিকোলা ডেনড্রিজ একটি ভার্চুয়াল এডুকেশন সিলেক্ট কমিটিতে বক্তব্য প্রদানকালে বলেন, প্রস্তাবটি গ্রহনের পর তারা কী ধরনের অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হবে, তা শিক্ষার্থীদের বলা উচিত।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close