যুক্তরাজ্যে নগদ অর্থের বিপরীতে আসছে ডিজিটাল কারেন্সি

যুক্তরাজ্যের চ্যান্সেলর ঋষি সুনাক দেশে একটি অফিশিয়াল ডিজিটাল কারেন্সি চালুর পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন, যা হবে নগদ অর্থের বিপরীতে শতাব্দী-প্রাচীন অর্থ ব্যবস্থায় সবচেয়ে বড় উত্থান। এর ফলে একটি নতুন ‘ব্রিটকয়েন‘ জাতীয় ডিজিটাল কারেন্সি বা ডিজিটাল মুদ্রা লোকজনের পকেটে থাকা নগদ মুদ্রাকে চাপা দেবে।
ট্রেজারি বিভাগের লোকজন বলেন, এজন্য ব্যাংক অব ইংল্যান্ড বাস্তব অর্থের একটি সরাসরি সমমান প্রতিষ্ঠা করবে এবং স্টার্লিংয়ের মতো এর নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করবে।
ট্রেজারিতে এর সমর্থকরা বলেন যে, এটা লোকজনের ব্যাংক একাউন্টে সরাসরি ব্রিটকয়েন পরিশোধের মাধ্যমে বর্তমান আর্থিক সংকটকালে অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার সুযোগ দেবে ব্যাংক অব ইংল্যান্ডকে। এছাড়া এটা ব্যাংকিং পদ্ধতিতে অনলাইনে অর্থ-পরিশোধ ও হস্তান্তরের ক্ষেত্রে খরচ ও সময় বাঁচাবে।ক্ষুদ্র প্রতিষ্ঠানসমূহের ক্ষেত্রে ব্রিটকয়েন ব্যাংকিং খরচ নাটকীয়ভাবে হ্রাস করবে।
তবে সমালোচকেরা এই বলে সতর্ক করে দিয়েছেন যে,পাউন্ডের একটি ডিজিটাল সংস্করণ বৃহত্তর আর্থিক অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করতে পারে এবং এর ফলে সুদের হার নির্ধারণসহ আর্থিক নীতিমালা সহ অর্থনীতি পরিচালনার ক্ষেত্রে ব্যাংকগুলোর সমস্যা হতে পারে। এছাড়া লক্ষ লক্ষ লোক তাদের নগদ অর্থ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ডিজিটাল মুদ্রায় রূপান্তর করায় ব্রিটকয়েন ঋণ ও বন্ধকের সুদের হার বৃদ্ধি করতে পারে।
সেন্ট্রাল ব্যাংক ডিজিটাল কারেন্সি হিসেবে পরিচিত ‘ব্রিটকয়েনে‘র সুবিধার দিকগুলো পরীক্ষার জন্য ট্রেজারী ও ব্যাংক কর্মকর্তাদের নিয়ে একটি টাস্কফোর্স গঠন করা হয়েছে।প্রত্যাশা করা যাচ্ছে, এ বছরের শেষ নাগাদ তারা এ বিষয়ে রিপোর্ট প্রদান করবে। বিটকয়েন উত্থানের প্রতিদ্বন্দ্বিতায় একটি অফিশিয়াল ব্রিটিশ ডিজিটাল কারেন্সি সৃষ্টির ব্যাপারে ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের ধারণার চেয়ে ট্রেজারি অধিক মনোযোগী হিসেবে প্রতীয়মান।
কারণ বিপুল সংখ্যক লোকের অর্থ-ক্রিপ্টোকারেন্সিতে রূপান্তরের চাপ মোকাবেলায় তাদের রীতিমতো হিমশিম খেতে হচ্ছে। তবে বিটকয়েনের মূল্য ব্যাপকভাবে হ্রাস পাওয়ায় অনেক বিনিয়োগকারী ইতিমধ্যে বিপুল অর্থ খুইয়েছেন। ইতিমধ্যে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ও তাদের নিজস্ব ডিজিটাল মুদ্রা চালুর চেষ্টা চালাচ্ছে। চীন ডিজিটাল ইউয়ানের পরীক্ষা করছে। মার্কিন অর্থমন্ত্রী জ্যানেট ইয়েলেন ডিজিটাল ডলার চালুর ইঙ্গিত দিয়েছেন।
ইউরোপিয়ান সেন্ট্রাল ব্যাংকও ডিজিটাল ইউরো চালুর পরিকল্পনা করছে। বিটকয়েন ও অন্যান্য ক্রিপ্টোকারেন্সির চেয়ে ভিন্নভাবে ব্রিটকয়েন পাউন্ডের মুল্যামানের সাথে সংযুক্ত এবং কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সমর্থনপুষ্ট হবে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...
Close
Back to top button