উত্তর আয়ারল্যান্ডের প্রতিষ্ঠা শতবার্ষিকীতে ব্রিটিশ রাণী ও প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন

উত্তর আয়ারল্যান্ডের প্রতিষ্ঠা শতবার্ষিকী উপলক্ষে অভিনন্দন জানিয়েছেন ব্রিটেনের রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথ। তিনি বলেন উত্তর আয়ারল্যান্ডের অব্যাহত শান্তি এর জনগনেরই কৃতিত্ব। অভিনন্দন বাণীতে রাণী আরো বলেন, যুক্তরাজ্য ও আয়ারল্যান্ড উভয়ের জন্য এটা একটি তাৎপর্যপূর্ণ শতবর্ষ। এই শতবার্ষিকী আমাদেরকে আমাদের জটিল ইতিহাসের কথা স্মরণ করিয়ে দেয়।
তিনি বলেন, এটা আমাদের সম্মিলন ও বৈচিত্র্যময়তা সম্পর্কে চিন্তাভাবনার একটি সুযোগ প্রদান করে। রাণী উত্তর আয়ারল্যান্ডের পরিচিতি, পটভূমি ও প্রত্যাশার সমৃদ্ধ মিশ্রনের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করে বলেন, প্রকৃতপক্ষে রাজনৈতিক অগ্রগতি ও শান্তি প্রক্রিয়া নেতাদের একটি প্রজন্মের কৃতিত্ব, যাদের বিভক্তির পূর্বে সমঝোতা করার দূরদৃষ্টি ও সাহস ছিলো। সর্বোপরি, অব্যাহত শান্তির জন্য কৃতিত্ব দেশটির জনগনের প্রাপ্য, যাদের ওপর ভবিষ্যত নির্ভর করে। একই সাথে তিনি উত্তর আয়ারল্যান্ডে শান্তির লক্ষ্যে বন্ধু ও ঘনিষ্ঠ প্রতিবেশীদের অবদানের কথা স্বীকার করেন। তিনি ১০ বছর আগে প্রিন্স ফিলিপস্সহ আয়ারল্যান্ড সফরের কথা স্মরন করেন।
তার উষ্ণ শুভেচ্ছাজ্ঞাপন করে রাণী বলেন, প্রজন্মব্যাপী উত্তর আয়ারল্যান্ডের জনগন শান্তি প্রক্রিয়ার প্রাপ্তির মাধ্যমে শক্তিশালী একটি সামগ্রিক, সমৃদ্ধ ও আশাবাদী সমাজ গঠনের পন্থা বেছে নিচ্ছে। আগামী বছরগুলোতে এটাই যেনো হয় আমাদের পথপ্রদর্শক।
ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন উত্তর আয়ারল্যান্ডের শতবার্ষিকীকে একটি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ জাতীয় বার্ষিকী হিসেবে উল্লেখ করেন। তিনি এক টুইট বার্তায় বলেন, এই শতাব্দিব্যাপী সরকার উত্তর আয়ারল্যান্ডের চমৎকার সবকিছুর ওপর আলোকপাত করবে। দেশটি বিশ্বমানের ফিনটেক ইন্ডাষ্ট্রি ও গবেষণা সক্ষমতা থেকে এর উদ্দীপিত তরুন জনগোষ্ঠী এবং শিল্প ও ক্রীড়ার স্পন্দমান সংস্কৃতি পর্যন্ত আমরা আলোকপাত করতে চাই।
তিনি আরো বলেন, আয়ারল্যান্ডের জটিল ইতিহাসের বিষয়েও চিন্তাভাবনা করা গুরুত্বপূর্ণ। উত্তর আয়ারল্যান্ডের সকল অঞ্চল, আয়ারল্যান্ড প্রজাতন্ত্র, যুক্তরাজ্য এবং সারা বিশ্বের জনগন ভিন্ন প্রেক্ষাপটে নানান পন্থায় এই শতবার্ষিকীকে গ্রহণ করবে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close