ডিজিটাল পাউন্ড বিটকনকে অস্তিত্বহীন করবে

ক্রিপ্টোকারেন্সী হিসেবে পরিচিত বিটকয়েন মারাত্মক হোঁচট খেয়েছে গত রোববার, দুই মাসের মধ্যে সবচেয়ে বড় পতন ঘটেছে এর মূল্যের ক্ষেত্রে। যুক্তরাষ্ট্রের টোকেনের জন্য সবচেয়ে বড়ো বিনিময় কয়েনবেজ গ্লোবাল ইনকর্পোরেট-এর স্টকমার্কেটে উদ্বোধনের পর গত বুধবার বিটকয়েনের রেকর্ড মূল্য দাঁড়ায় কমপক্ষে ৪৫ হাজার ৭’শ ৭৩ পাউন্ড। এরপর দিন তিনেক যেতে না যেতেই ঘটলো এই মূল্যপতন।
বিটকন গত সপ্তাহ থেকে প্রায় ১২ শতাংশ হ্রাস প্রাপ্ত অবস্থায় রয়েছে এমন সতর্কবাণী মধ্যে যে, বিনিয়োগকারীরা ক্রিপটো সম্পত্তির ক্ষেত্রে মারাত্মক ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারেন। এমনকি মাইক্রোসফটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস-এর নিকট থেকেও।

সিজি অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট-এর ইনভেস্টমেন্ট ম্যানেজার ক্রিস ক্লদিয়ার বলেন, বিনিয়োগকারীদের জন্য পরিস্থিতি অধিকতর শোচনীয় হতে পারে। গত জানুয়ারি মাসে ক্রিপ্টোকারেন্সি সংক্রান্ত একটি বিশেষ প্রতিবেদনে তিনি উল্লেখ করেন, ইতিহাস বোধ হয় আর বিটকনের পক্ষে নেই।
তিনি বলেন, ফ্ল্যাট মুদ্রাসমূহ টিকে থাকে ভালোভাবেই কারণ এগুলো রাষ্ট্রীয় লেনদেনের মাধ্যম হিসেবে ব্যবহৃত হয়। প্রাইভেট মুদ্রাসমূহ-এর উল্টোটি করে, এগুলো রাষ্ট্রীয় ক্ষমতাকে অবমূল্যায়ন করে।
তিনি আরো বলেন, এগুলো সর্বনিম্ন রাষ্ট্রীয় সহায়কটুকুও পায় না। সবচেয়ে খারাপ ব্যাপার হচ্ছে, এগুলো আইনত অস্তিত্বহীন হয়ে যেতে পারে।
সম্প্রতি ব্রিটেনের অর্থমন্ত্রী ঋষি সুনাক এই মর্মে ঘোষণা করেন যে, ট্রেজারি ও ব্যাংক অব ইংল্যান্ড ব্যবসা ও গৃহস্থালীর জন্য একটি ডিজিটাল পাউন্ডের যথার্থতা বা ব্যবহারযোগ্যতা বিষয়ে পরীক্ষা করে দেখবে। যুক্তরাজ্যের অধিকতর উদ্ভাবনী সম্পন্ন ব্রেক্সিট উত্তর অর্থনীতি গঠননের একটি উদ্যোগ হিসেবে এ উদ্যোগ নেয়া হবে।
স্টার্লিংয়ের একটি ব্যাংক অব কর্তৃক সহায়তাপুষ্ট ডিজিটাল সংস্করণ ব্যবসায়ী ও গ্রাহকদের ব্যাংকে একাউন্ট ধারণে সম্ভাব্য সুযোগ দেবে এবং পরবর্তী বছরগুলোতে অর্থ পরিশোধের ক্ষেত্রে এগুলো অন্যান্য মাধ্যম পরিহার করবে।
মিঃ সুনাক এক আর্থিক সম্মেলনে বলেন, আমরা ট্রেজারি ও ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের মধ্যে একটি নতুন টাস্ক ফোর্স চালু করছি সম্ভাব্য কেন্দ্রীয় ব্যাংক ডিজিটাল কারেন্সি সংক্রান্ত উদ্ভাবনী কার্য সমন্বয়ের জন্য।
অন্যান্য কেন্দ্রীয় ব্যাংকও তাদের মুদ্রাসমূহের ডিজিটাল সংস্করণ তৈরির লক্ষ্যে কাজ করছে বলে জানা গেছে। ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলেছে, একটি ডিজিটাল ইউরো হবে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের একটি ইলেকট্রনিক আকার বা আঙ্গিক, যা ব্যাংক নোটের মতোই সকল নাগরিক ও প্রতিষ্ঠানের কাছে লভ্য হবে, তাদের প্রাত্যাহিক পরিশোধের ক্ষেত্রে সহজে ও নিরাপদে ব্যবহৃত হবে। এটা নগদ অর্থের সম্পূরক হবে, নগদ অর্থকে অপসারণ করবে না।যে কোনো ক্ষেত্রে ইউরো সিস্টেম নগদ অর্থ ইস্যু করা অব্যাহত রাখবে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close