তুরস্ককে ড্রোন নির্মাণের যন্ত্রাংশ দেবে না যুক্তরাজ্যের অ্যারোস্পেস

যুক্তরাজ্যে আর্মেনীয় দূতাবাসের অনুরোধে ব্রিটিশ অ্যারোস্পেস কোম্পানী ‘অ্যানডেয়ার লিমিটেড’ তুরস্কে ড্রোনের যন্ত্রাংশ প্রেরণ স্থগিত করেছে। অ্যানডেয়ার বলেছে, তারা লন্ডনস্থ আর্মেনীয় দূতাবাসের নিকট থেকে অভিযোগ পাবার পর তুরস্কের শীর্ষস্থানীয় অস্ত্র প্রস্তুতকারক কোম্পানী বায়কারের নিকট ড্রোনের যন্ত্রাংশ সরবরাহ করবে না।

বায়কার হচ্ছে বিখ্যাত বায়রাকতার টিবি-টু ড্রোন প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান, যে প্রতিষ্ঠান বিশ্বের অস্ত্র শিল্পে ইতোমধ্যে উল্লেখযোগ্য স্থান দখল করেছে এবং লিবিয়া থেকে সিরিয়াসহ সাম্প্রতিক আজারবাইজানের যুদ্ধক্ষেত্রগুলোতে তাদের তৈরী অস্ত্রসমূহের বিশেষ কার্যকারিতা প্রমাণিত হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া ছাড়াও ইউরোপের বিভিন্ন দেশে বহু আর্মেনীয় প্রবাসীর বসবাস। আজারবাইজানের বিরুদ্ধে তাদের উপর্যুপরি লবিংয়ের ফলে অ্যানডেয়ার লিমিটেড এধরনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট মহলের অভিমত।
২০২১ সালের ১১ জানুয়ারী কোম্পানীর এক বিবৃতিতে বলা হয়, ০২-১১-২০২০ ইং তারিখে আর্মেনীয় দূতাবাস অ্যানডেয়ার লিমিটেড-এর কাছে যায় এবং তুরস্কের বায়কারের কাছে বায়কার মাকিনা সরবরাহ বন্ধের জন্য অনুরোধ জানায়, কারণ এই তুর্কী অস্ত্র কোম্পানী তাদের উৎপাদিত উপকরণ সশ¯্র ড্রোন নির্মাণে ব্যবহার করছে।
প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, ব্রিটিশ কোম্পানীর-এ ধরনের সিদ্ধান্ত তুরস্কের কোম্পানীর উৎপাদন প্রক্রিয়া এবং এর ড্রোন পরিচালনার সক্ষমতায় খুব সামান্যই প্রভাব ফেলবে। তুরস্ক বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম ড্রোন ব্যবহারকারী দেশ।
বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, আর্মেনীয় অধিকৃত নগর্নো-করাবাখ অঞ্চল নিয়ে ৪৪ দিনের যুদ্ধে আর্মেনিয়ার বিরুদ্ধে আজারবাইজানের বিজয়ের পেছনে অন্যতম ফ্যাক্টর বা কারণ ছিলো তুরস্ক নির্মিত ড্রোন।
বিশেষজ্ঞদের মতে, বায়কার কোম্পানী তাদের ড্রোনে অ্যানডেয়ারের জ্বালানী পাম্প, চেক ভালভ্ ও ওয়াটার হোল্ডারের মতো জ্বালানী পদ্ধতি ব্যবহার করেছে। তাদের মতে, ড্রোনের জ্বালানী সিস্টেমের এসব উপকরণ বিশ্বব্যাপী বাণিজ্যিকভাবে বিকিকিনি হয়। তাই ব্রিটিশ কোম্পানী কর্তৃক এগুলোর সরবরাহ বন্ধের ফলে বায়কারের বায়রাকতার টিবি-টু ড্রোন উৎপাদনে তেমন কোন তাৎপর্যপূর্ণ প্রভাব পড়ার সম্ভাবনা নেই।
প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞ অনীল শাহীন বলেন, তুরস্কের বায়কার সভুনমা (প্রতিরক্ষা) তাদের আকিনকি যুদ্ধ ড্রোনে এর চেয়ে অনেক বেশী উন্নতমানের চেক ভালভের ডিজাইন করেছে।
অনেক রিপোর্ট থেকে জানা গেছে, বায়কার যুক্তরাজ্য ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ‘ইডো এমবিএম টেকনোলজি’ থেকে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের জন্য গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রাংশ ‘বোম্ব র‌্যাক’ ক্রয় করেছে। অবশ্য বায়কার-এর চীফ এক্সিকিউটিভ সেলকুক বায়রাকতার দৃঢ়ভাবে এটা অস্বীকার করেছেন।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close