তৃতীয় লকডাউনকালে ঋষি সুনাকের ৪.৬ বিলিয়ন পাউন্ডের সহায়তা পরিকল্পনা

ব্রিটেনে তৃতীয় লকডাউনের সময় ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানগুলোকে সাহায্য করতে ব্রিটিশ চ্যান্সেলর ঋষি সুনাক ৪.৬ বিলিয়ন পাউন্ডের পরিকল্পনা গ্রহন করেছেন। এতে রিটেইল অর্থাৎ খুচরো ব্যবসা, আতিথেয়তা ও অবকাশ কেন্দ্রগুলোর জন্য ৯০০০ পাউন্ড পর্যন্ত মঞ্জুরী অন্তর্ভুক্ত। কভিড-১৯ এর ক্রমবর্ধমান হার নামিয়ে আনার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন কর্তৃক জনগনকে ঘরে অবস্থান ও স্কুলসমূহ বন্ধ করে দেয়ার আদেশ প্রদানের পর এই পরিকল্পনার কথা ঘোষনা করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, লকডাউনের বিধি নিষেধ অন্তত: মধ্য ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত স্থায়ী হবে, যদিও কেবিনেট মিনিস্টার মাইকেল গৌভ বলেছেন, মার্চের শেষ পর্যন্ত এটা স্থায়ী হতে পারে। চ্যান্সেলর ইতোমধ্যে ফারলো স্কীমের মেয়াদ এপ্রিলের শেষ পর্যন্ত বর্ধিত করেছেন। আগের দু’টো লকডাউনের মতো বার, পাব, রেস্তোরাঁ, জিম ও হেয়ার ড্রেসারদের মতো আবশ্যকীয় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো অবশ্যই বন্ধ থাকবে। বন্ধ থাকা প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের মূল্যমান অনুযায়ী অর্থ পাবে।
ব্যবসাকে সহায়তার লক্ষ্যে প্রতিটি সম্পত্তি ভিত্তিতে নগদ অর্থ প্রদান করা হবে। ট্রেজারি জানিয়েছে, এ ধরনের মঞ্জুরীতে ৪ বিলিয়ন পাউন্ডের ৬ লাখ ব্যবসা সম্পত্তি উপকৃত হবে। এছাড়া ৫৯৪ মিলিয়ন পাউন্ড দেয়া হবে স্থানীয় কর্তৃপক্ষসমূহ এবং ডেভোলভড অ্যাডমিনিস্ট্রেশনস-কে অন্যান্য ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে সহায়তার জন্য, যেগুলো মঞ্জুরী পাওয়ার যোগ্য নয়, কিন্তু নিষেধাজ্ঞার দরুন ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।
মিঃ সুনাক বলেন, ভাইরাসের নতুন স্ট্রেইন আমাদের সকলের প্রতি একটি বড়ো ধরনের চ্যালেঞ্জ ছঁড়ে দিয়েছে এবং যখন ভ্যাকসিন চালু হচ্ছে, তখন আমাদেরকে বিধি-নিষেধকে অধিকতর কঠোর করতে হবে।
তিনি বলেন, মহামারির সময়ব্যাপী আমরা জীবন ও জীবিকা রক্ষার্থে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি এবং এখন আমরা বসন্ত পর্যন্ত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও চাকুরী সুরক্ষার জন্য আরেকটি নগদ অর্থ প্রদানের ঘোষনা দিচ্ছি। এটা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোকে আগামী মাসসমূহে চলতে সাহায্য করবে। বিশেষভাবে এটা চাকুরী টিকিয়ে রাখতে সাহায্য করবে, যাতে শ্রমিক-কর্মীরা যখন ব্যবসা আবার খুলবে, তখন ফিরে আসার জন্য প্রস্তুত হতে পারে। এই সহায়তা স্থানীয় কতৃপক্ষসমূহের জন্য ১.১ বিলিয়ন পাউন্ড এবং মাসিক ৩ হাজার পাউন্ডের লোকাল রেসট্রিকশন গ্রান্টস একই সাথে বর্ধিত জব ফারলো স্কীমের অতিরিক্ত। গত সোমবার ব্রিটিশ রিটেইল কনসোর্টিয়াম-এর চীফ এক্সিকিউটিভ হেলেন ডিকিনসন বলেন, যারা উপর্যুপরি লকডাউনের ফলে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত, তাদের জন্য এপ্রিল থেকে বিজনেস রেইটস রিলিফ বর্ধিতকরন হতে পারে সবচেয়ে বড়ো সরকারী সহায়তা।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close