বৈদেশিক অনুদান কমাচ্ছে ব্রিটিশ সরকার

প্রাণঘাতী করোনা মহামারীতে ২১০ বিলিয়ন পাউন্ডের আর্থিক প্যাকেজ সামলাতে বিদেশি অনুদান থেকে ৫ বিলিয়ন পাউন্ড সহায়তা ছাঁটকাট করার পরিকল্পনা করেছেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। অর্থমন্ত্রী ঋষি সুনাক বলেছেন, তারা বৈদেশিক অনুদান ০.৫ শতাংশে নামিয়ে আনতে যাচ্ছে, যার ফলে ৫ বিলিয়নপাউন্ড অর্থ বাঁচবে। তবে ২০২২ সালের মধ্যে পুনরায় বৈদেশিক অনুদান ০.৭ শতাংশে ফিরিয়ে আনার পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের।
ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর মুখপাত্র জানান, আমরা চাই করদাতাদের অর্থ সঠিক জায়গায় সঠিকভাবে ব্যবহৃত হোক। বৈদেশিক অনুদানের অর্থের বেশিরভাগ দরিদ্র দেশগুলোতে গেলেও ২০১৪ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত অনুদানের প্রায় ৩৬ থেকে ৪৫ শতাংশ অর্থ গিয়েছিলো মধ্য আয়ের দেশগুলোতে। গত বছর প্রায় ১৫ বিলিয়ন পাউন্ড বৈদেশিক অনুদান দিয়েছিলো ব্রিটিশ সরকার।
প্রতিবছর মোট জাতীয় আয়ের ০.৭ শতাংশ বিশ্বের উন্নয়নশীল দেশগুলোকে অনুদান সহায়তা দেয় ব্রিটেন। কিন্তু ব্রিটেনের অনুদানের এই অর্থ ভারতের মহাকাশ প্রকল্প ও চীনের বনরুই সংরক্ষণে ব্যবহৃত হওয়ার পর অভ্যন্তরীণভাবে সমালোচনার মুখে পড়ে ব্রিটেন। দরিদ্র দেশগুলোর পরিবর্তে ভারত ও চীনকে অনুদানের অর্থ দেয়ার সমালোচনা করেন অনেক ব্রিটিশ এমপি।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close