সুপার মার্কেট চেইন ‘আসদা’ কিনে নিলেন মুসলিম বিলিয়নিয়র

দুই মুসলিম ভাই মহসিন এবং জুবের ঈসা যুক্তরাজ্যের প্রধান রিটেইলার আসদা ক্রয়ে সফল হয়েছেন। এই সুপার মার্কেট চেইনের পূর্বতন মালিক ছিলো বিশ্ব বিখ্যাত মার্কিন কোম্পানী ওয়ালমার্ট, এর মূল্য ৬.৮ বিলিয়ন পাউন্ড। আসদায় ওয়ালমার্টের একটি অংশ থাকলেও এর অধিকাংশ শেয়ারের মালিক এখন ঈসা ভ্রাতৃদ্বয় ও তাদের প্রাইভেট ইক্যুইটি ফার্ম টিডিআর ক্যাপিটাল।

ব্ল্যাকবার্ন-এর মডেস্ট টাউন থেকে উৎসারিত অর্থের মাঝে বেড়ে ওঠেননি এই ভ্রাতৃদ্বয়। এই স্ব-সৃষ্ট বিলিয়নারদের একটি সাধারণ পরিচিতি রয়েছে। ১৯৯৬ সালে তারা একটি পেট্রোল স্টেশন ভাড়া নিয়ে ব্যবসা শুরু করেন। এরপর ২০০১ সালে তারা নিজেদের ‘ইউরো গ্যারেজেস’ গঠন করেন। এখন ইজি গ্রুপের ১০টি দেশজুড়ে ৬ হাজার সাইট বা কর্মস্থল রয়েছে এবং তাদের কর্মচারীর সংখ্যা ৪৪ হাজার।
২০১২ সালে, তারা ফুটবল টিম  ‘ইউরো গ্যারেজেস এফসি’ প্রতিষ্ঠা করেন। ২০১৭ সালে ৭৭ লিটল শেফ রোড সাইড রেস্টুরেন্ট ক্রয় করেন এবং সম্প্রতি তারা ৩৫ মিলিয়ন পাউন্ডের ইজি হেডকোয়ার্টার প্রতিষ্ঠা করেছেন।
যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রে মুসলমানদের আগমন সপ্তম শতাব্দী থেকে। হয় সাহাবা কিংবা তাবিই’ন হিসেবে তাদের প্রথম আগমন ঘটে। এমনকি জনৈক ব্রিটিশ রাজাও ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) এর মাত্র ১০০ বছর পর।
ঈসা ভ্রাতৃদ্বয়ের পিতা এখনো এই এলাকায় বসবাস করছেন। যেখানে তারা বেড়ে উঠেছেন কারণ তারা স্থানীয় মসজিদের কাছে থাকতে চান। ভ্রাতৃদ্বয় এখন এর কিছু দূরে তাদের পরিবারের সকল সদস্যের জন্য পাঁচটি সুপার ম্যানশন নির্মাণ করেছেন। তাই এর অর্থ হতে পারে, তাদের পিতা-মাতার জন্য বাইরে যাচ্ছেন।
জুবের ঈসা বলেন, আমরা (ইজি) শূণ্য থেকেই বেড়ে ওঠেছি, আমরা টয়লেট পরিষ্কার করা থেকে সবকিছুই করে আসছি। সব কিছু করতে হচ্ছে আমাদের। তারা যে এলাকায় বেড়ে ওঠেছেন, সেই এলাকার জনৈক ব্যক্তিকে তাদের ব্যাপারে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন, তারা ভাল মানুষ, অত্যন্ত চমৎকার পরিবার।
জুবের মাঝে মাঝে এখানে আসেন তার চুল কাটাতে।তারা ভালো লোক, যারা অত্যন্ত পরিশ্রমী। এই গ্রহণের মানে হচ্ছে, যুক্তরাজ্যের এই রিটেইলারটি আবার বিদেশীদের হাত থেকে স্বদেশীদের হাতে ফিরে আসছে। ঈসা ভাইয়েরা ইতোমধ্যে তাদের পেট্রোল ফোরকোর্ট ব্যবসার মাধ্যমে আসদা’র সাথে ব্যবসা করছেন। ঈসা ভাইয়েরা আসদা’র সাম্প্রতিক ট্রায়ালের সিদ্ধান্তের সাথে তাদের অভিজ্ঞতাকে সম্ভবত: টেবিলে নিয়ে আসবেন ।
ভ্রাতৃদ্বয়ের মন্তব্য হচ্ছে, আমরা বিশ্বাস করি যে, ইজি’র সাথে আমাদের অভিজ্ঞতা, এর পাশাপাশি কনভিনিয়েন্স ও ব্রান্ড পার্টনারশীপ সংক্রান্ত আমাদের অভিজ্ঞতা এবং টিডিআর। ক্যাপিটাল-এর সাথে আমাদের সকল পার্টনারশীপ ঐ বৃদ্ধির কৌশলকে ত্বরান্বিত ও বাস্তবায়ন করতে সাহায্য করতে পারে।
ইন্ডাস্ট্রি নেতৃবৃন্দ বলেন যে, ঈসা ভ্রাতৃদ্বয় মৃদুভাষী,সাধারণ প্রকৃতির ও সদাচারী। পেট্রোল রিটেইলার্স অ্যাসোসিয়েশনের (পিআরএ)-এর চেয়ারম্যান ব্রায়ান ম্যাডডারসন বলেন, ভ্রাতৃদ্বয় উল্লেখযোগ্য ব্যবসায়ী ব্যক্তিত্ব। তারা তাদের পেট্রোল স্টেশন ব্যবসায় বৃদ্ধির ক্ষেত্রে দারুণ গতি প্রদর্শন করেছেন।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close