কোয়ারেন্টিন এড়াতে হিথ্রোতে করোনা পরীক্ষার সুযোগ

লন্ডনের হিথ্রো বিমানবন্দরে শীঘ্রই করোনা পরীক্ষার ব্যবস্থা চালু করা হচ্ছে। সেখানে আগত যাত্রীরা এই পরীক্ষায় নেগেটিভ প্রমাণিত হলে তাদেরকে আর ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে না। তবে এই পরীক্ষা ইচ্ছামূলক। যারা পরীক্ষা করাবেন না, তাদেরকে বাধ্যতামূলকভাবে কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

ব্রিটিশ সরকার ইতিমধ্যে ৬০ টি দেশ থেকে আগত ভ্রমণকারীদের জন্য কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড় দিয়েছে। তবে এই বিধিটি পর্তুগাল এবং আফ্রিকার প্রতিটি দেশ সহ ১০০ টিরও বেশি দেশের জন্য কার্যকর রয়েছে। অন্যান্য অনেক দেশই বিমানবন্দরে আগমনের সময়ই করোনা পরীক্ষা চালু করেছে। তবে চার সপ্তাহ আগে ব্রিটেনে যখন কোয়ারেন্টিনের প্রয়োজনীয়তা আরোপ করা হয়েছিল, তখন হোম অফিস স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছিল যে, কোয়ারেন্টিনের বিকল্প হিসাবে পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে না।
নতুন সিদ্ধান্তে, পেইড-ফর সার্ভিস হিসাবে করোনা পরীক্ষার সুযোগ হিথ্রো টার্মিনাল ২-এ আগত বিদেশী যাত্রীরা নিতে পারবেন। তবে ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের যাত্রীদের এই পরীক্ষা করাতে হবে না, তারা বর্তমানে কেবলমাত্র টার্মিনাল ৫ ব্যবহার করে যাতায়াত করবেন।
এই পরীক্ষার দাম এখনও নির্ধারণ করা হয়নি, তবে এটি সম্ভবত ১০০ থেকে ১৭০ পাউন্ডের মধ্যে থাকতে পারে। ভিয়েনা বিমানবন্দরে যেমন এর জন্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৯০ ইউরো (১৭০ পাউন্ড)। কিছু এয়ারলাইনস তাদের বিজনেস-ক্লাসের যাত্রীদের জন্য সেবার অংশ হিসাবে এই পরীক্ষা অর্ন্তভূক্ত করতে পারে।
যাত্রীদের ব্রিটেনের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরুর আগেই অনলাইনে একাউন্ট খুলতে হবে এবং পরীক্ষার জন্য বুকিং দিতে হবে। বিমানবন্দরে সুইসপোর্ট সুবিধায় কলিনসন সংস্থার নার্সরা এই পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করবেন, যা পরে হিথ্রোর কাছে কলিনসন পরীক্ষাগারে প্রেরণ করা হবে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close