ব্রিটেনের নাগরিকত্ব পাচ্ছে হংকংয়ের ৩০ লক্ষাধিক লোক

হংকংয়ে চীনের নতুন ‘জাতীয় সুরক্ষা’ আইন বাস্তবায়ন করা হলে প্রায় ৩০ লক্ষাধিক মানুষকে ব্রিটেনে সম্পূর্ণ নাগরিকত্ব দেয়া হবে বলে অঙ্গীকার করেছেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। এমনকি তাদের সেখানে স্বাধীনভাবে কাজ করার অনুমতিও দেয়া হবে বলে জানান তিনি।

জনসন বলেন, এই কার্যক্রমটি সফল হলে এটি যুক্তরাজ্যের ইতিহাসের ভিসা ব্যবস্থার সবচেয়ে বড় পরিবর্তন হবে।
এর আগে ব্রিটেনের পররাষ্ট্র সচিব ডোমিনিক রাব বলেন, এই সুযোগটি শুধুমাত্র হংকংয়ে বসবাসরত সাড়ে ৩ লাখ ব্রিটিশ পাসপোর্টধারী ও তাদের পরিবারের জন্য প্রযোজ্য। তবে বরিস জনসন বলেন, তিনি হংকংয়ের আরো ২.৫ মিলিয়ন লোকের জন্য এই সুযোগ দিবেন। এমনকি যারা বিএনও পাসপোর্টধারী নন।
তিনি আরো বলেন, হংকং ব্রিটেনের অনেক পুরনো বন্ধু। আর বন্ধুত্বের এই গভীর বন্ধনকে সমর্থন করা ছাড়া আর কোনো উপায় নেই।
গত মাসে চলমান বিক্ষোভ সত্ত্বেও বিতর্কিত হংকং নিরাপত্তা আইনের প্রস্তাব অনুমোদন করেছে চীনের সংসদ। পক্ষে পড়েছে দু হাজার ৮৭৮ ভোট আর বিপক্ষে মাত্র একটি। হংকংয়ের নিরাপত্তার জন্য হুমকি হতে পারে এমন অপরাধসহ বিভিন্ন শাস্তির বিধান রেখে আইন প্রণয়নের প্রস্তাব অনুমোদিত হয়।
হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থিরা ‘এক দেশ, দুই ব্যবস্থা’র বিরোধিতায় দীর্ঘদিন ধরেই বিক্ষোভ করছেন। এমনকি চীনের সংসদে যখন বিতর্কিত বিলটি অনুমোদন হচ্ছিলো তখনো বাইরে বিক্ষোভ চলে। শুধুমাত্র ওইদিনের বিক্ষোভেই ৩৬০ জন বিক্ষোভকারীকে গ্রেফতার করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ।
চীনের নতুন এই আইনে যা যা বলা হয়েছে- ১. রাষ্ট্রদ্রোহ, বিচ্ছিন্নতাবাদ, ও ধ্বংসাত্মক কার্যকলাপ নিষিদ্ধ থাকবে। ২. জাতীয় গণ-কংগ্রেসে অনুমোদনের আগে প্রস্তাবিত আইনটিকে ‘খসড়া সিদ্ধান্ত’ হিসেবে থাকবে। ৩. হংকংয়ের জাতীয় নিরাপত্তা উন্নত করতে হবে। ৪. যখন প্রয়োজন হবে কেন্দ্রীয় সরকারের প্রাসঙ্গিক জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থাগুলো হংকং-এ এজেন্সি স্থাপন করবে, যাতে জাতীয় নিরাপত্তা সুরক্ষিত করতে আইন অনুযায়ী দায়িত্ব পালন করা যায়।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close