যুক্তরাজ্যে শ্বেতাঙ্গ অভিবাসন একটি সম্পদ, যখন অন্য সবাই অবাঞ্ছিত

আফুয়া হিরশ: একটি রক্ষণশীলতা যা আমার মধ্যে ছিলো, তা ২০১৯ সালের ব্রেক্সিট ভোটের পর প্রকাশিত হলো, যখন আমার এক ফরাসী বন্ধু, যিনি একজন শ্বেতাঙ্গ আমাকে এর ফলাফলের ব্যাপারে তার উদ্বেগের কথা বললেন। গণভোটের পর সকল বিদেশীর বিরুদ্ধে উগ্র জাতীয়বাদ বৃদ্ধির লক্ষণ দেখা যাচ্ছিলো। বন্ধুটি বললেন, লোকজন যেনো আমাদের অভিবাসীর মতো দেখছে! আমরা যেনো এখানকার কেউ নই। তাৎক্ষণিকভাবে আমার মনে হলো, ‘ভালো কথা’, আমি কোন অভিবাসি নই কিন্তু আমাকে সর্বদা এ ধরনের একজন হিসেবেই দেখা হচ্ছে। একজন সরকারী ব্যক্তি বা নীতির প্রতি অনুধাবন যোগ্য অপরাধের জবাবে আমার উপর্যুপরি বক্তব্য হচ্ছে, যদি তুমি এখানে তাই না হও, তবে এই স্হান ত্যাগ করো।…

Want to read more?

Please register/login to get premium access on website, smartphone and apps.
Register Login

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close