ব্রিটেনের প্রবীণতম ইয়োগা শিক্ষক ৯০ বছর বয়‌সেও ক্লাস নিচ্ছেন

টম অ্যালান ৫৫ বছর বয়সে ইয়োগা গ্রহণ করেছিলেন কারণ তিনি ফিট হতে চেয়েছিলেন। ৩০ বছরেরও বেশি সময় পরে, তিনি এখন একজন ব্য‌ায়ামের ‌শিক্ষক, সপ্তাহে দু’বার ক্লাসে নেতৃত্ব দেন। যদিও তিনি এখন ৯০ বছর বয়সী, শীঘ্রই থামার কোনও পরিকল্পনা তার নেই এবং তিনি ১০০ বছর বয়সেও তা করতে চান।

টম বলেছেন, ‘‘বিশ্বের প্রাচীনতম ইয়োগা শিক্ষক আমেরিকার একজন ১০১ বছর বয়সী মহিলা এবং আমি অবশ্যই আমার দর্শনীয় স্থানগুলিতে তার রেকর্ড পেয়েছি। আমি এখনও বেশিরভাগ ভঙ্গিমা করতে পারি। আমি অল্প বয়সে যা করতে পেরেছিলাম সেগুলি এখন আর কিছু করতে পারছি না, তবে এমন ভঙ্গি করার জন্য আমি মডেল ব্যবহার করি।’’

তিনি ৫৫ বছর বয়সে শুরু করেছিলেন এবং শিক্ষক হওয়ার সুযোগ পাওয়ার আগে তিনি একটি ক্লাসে দু’বছ‌রের বেশি সময় কাটিয়েছিলেন। ‘‘আমি তখন ছাত্র ছিলাম এবং শিক্ষক প্রশিক্ষণ কোর্স গ্রহণের আমন্ত্রণ না পাওয়া পর্যন্ত আমি এক সপ্তাহে বেশ কয়েকটি ক্লাসে গিয়েছিলাম। এই সমস্ত ঘটেছে গ্লাসগোতে, কোর্সটি আংশিকভাবে গ্লাসগো আংশিকভাবে এডিনবার্গ ভিত্তিক ছিল। এর পরে, আমি যখন আমার কাজ থেকে ৬০ বছর বয়সে অবসর নিয়েছিলাম, তখন আমি গ্লাসগোতে নিজস্ব ক্লাস শুরু করি। আমার বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি সহ মোট ছয়টি ক্লাস ছিল।’’ বলছেন টম অ্যালান।

তিনি ইয়োগা শিল্পে নিজেকে ফিট রাখার কৃতিত্ব দেন তবে তিনি বলেন, এটি শুধু ব্যায়াম নয়, এটি একটি জীবনযাত্রা এবং ইয়োগার ‘পূর্ব শৈলীর’ প্রতিবিম্বিত করতে তিনি তাঁর জীবনকে মানিয়ে নিয়েছেন। তিনি ২০ বছর আগে স্কটল্যান্ড ছেড়ে প্লাইমাউথে চলে গিয়েছিলেন এবং যদিও ৭০ বছর বয়সে তিনি নতুন গ্রাহক সন্ধানে প্রাথমিকভাবে উদ্বিগ্ন ছিলেন, তিনি হেরউড হাউস পেয়েছিলেন, যেখানে তিনি এখন তাঁর ক্লাস করেন। টম অ্যালান বলেন, ‘‘আমি এখন সপ্তাহে দুটি ক্লাস করাই এবং সেগুলি প্রায় সর্বদা পূর্ণ। আমি এখনও এটি খুব উপভোগ করি। আমি যোগব্যায়াম জীবনধারা অনুসরণ করি এবং সবকিছু সংযম করে করি তাই আমার ওজনও স্থির।’’

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close