২৫ বছর বয়সী মুসলিম যুবকের কাছে হারতে পারেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী!

যুক্তরাজ্যের আসন্ন সাধারণ নির্বাচনে নিজের সংসদীয় আসনেই এক মুসলিম যুবকের কাছে জোর প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখোমুখি হতে পারেন কনজারভেটিভ পার্টির শীর্ষ নেতা ক্ষমতাসীন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। উক্সব্রিজের আসনে বিরোধী লেবার পার্টি মুসলিম ওই অভিবাসী যুবককে মনোনয়ন দিয়েছে। ২৫ বছর বয়সী আলি মিলানির প্রচার এরই মধ্যে ওই আসনের ভোটারদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে বলে ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

উত্তরপশ্চিম লন্ডনের উক্সব্রিজ এক দশক আগেও টোরিদের নিরাপদ আসন হিসেবেই পরিচিত ছিল। গত এক দশকে এ চিত্র অনেকখানিই বদলে গেছে। ২০১৭ সালের শেষ সাধারণ নির্বাচনে জনসন এখানে মাত্র ৫ হাজার ৩৪ ভোটের ব্যবধানে জিতেছেন। লেবার পার্টি যদি এবার আগের ভোটের সঙ্গে অতিরিক্ত পাঁচ শতাংশ যোগ করতে পারে তাহলেই ক্ষমতাসীন প্রধানমন্ত্রী বিপদে পড়বেন।

ব্রিটিশ আইন অনুযায়ী, সাংসদকে তার আসনের বাসিন্দা হতে হয় না। জনসন উক্সব্রিজে বসবাস না করলেও মাঝে মাঝেই তাকে এলাকার ভোটারদের সঙ্গে দেখা ও শুভেচ্ছা বিনিময় করতে দেখা গেছে। এই সুযোগকেই কাজে লাগাতে চান নিজেকে স্থানীয় হিসেবে পরিচয় দেওয়া আলি মিলানি। উক্সব্রিজের বাসিন্দা মিলানি ব্রুনেল বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় সেখানকার ছাত্রনেতা হিসেবেও পরিচিত ছিলেন।

আলির জন্ম তেহরানে। পাঁচ বছর বয়সে লন্ডনে আসেন তিনি। তখন মা ছাড়া কেউ ছিলো না তার। আংশিক বৃত্তিতে পড়াশোনা করেছেন স্কুলে। অন্যদিকে বরিস জনসনের জন্ম নিউ ইয়র্কে। তার বাবা একজন কূটনীতিক ছিলেন। মা ছিলেন শিল্পী। তার পড়াশোনা অক্সফোর্ডে। রাজনীতিতে আসার আগে একজন জনপ্রিয় সাংবাদিক ছিলেন। যুক্তরাজ্যের আইন অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার জন্য কোনও আসনে এমপি হওয়ার দরকার নেই। জনসন হাউস অব লর্ড থেকে সরকার চালঅতে পারেন। তবে বিগত ১০০ বছরে এই ঘটনা ঘটেনি।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close