ব্যক্তিগত জীবনে লি ছিলেন নিভৃতচারী, প্রচারবিমুখ

মাল্টিন্যাশনাল প্রতিষ্ঠান স্যামসাং প্রধানের মৃত্যু

দক্ষিণ কোরিয়ার ইলেকট্রনিকস পণ্যসামগ্রীর স্বনামধন্য মাল্টিন্যাশনাল প্রতিষ্ঠান স্যামসাং ইলেকট্রনিকসের চেয়ারম্যান লি কুন-হি আর নেই। প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে রোববার এক বিবৃতিতে তার মৃত্যুর খবর জানানো হয়। প্রতিষ্ঠানটিকে বিশ্ব দরবারে নিয়ে আসা লি’র মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর। তার নেতৃত্বে স্মার্টফোন ও মেমোরি চিপ উৎপাদনে বিশ্বের বৃহত্তম প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয় স্যামসাং।
লি’র অধীনে স্যামসাংয়ের অর্থনৈতিক ভিত এতটাই মজবুত হয়েছে যে, দক্ষিণ কোরিয়ার মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) এক-পঞ্চমাংশেই প্রতিষ্ঠানটির অবদান রয়েছে।
ব্যক্তিগত জীবনে লি ছিলেন নিভৃতচারী, প্রচারবিমুখ। ২০১৪ সালে হার্ট-অ্যাটাকের পর শয্যাশায়ী হয়ে পড়েন তিনি। এরপর থেকে তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে তেমন কোনো তথ্য প্রকাশ্যে আসেনি, শেষ দিনগুলোতে রহস্যঘেরা মানুষে পরিণত হন তিনি।
লি’র মৃত্যুর খবর জানিয়ে স্যামসাংয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে আমরা জানাচ্ছি যে, স্যামসাং ইলেকট্রনিকসের চেয়ারম্যান কুন-হি লি আর নেই।”
“চেয়ারম্যান লি ২৫ অক্টোবর আমাদের ছেড়ে চলে যান। মৃত্যুকালে তার পাশে ছিল ভাইস চেয়ারম্যান জেই ওয়াই লি’সহ পরিবারের সদস্যরা।”
“চেয়ারম্যান লি ছিলেন সত্যিকারের স্বপ্নদ্রষ্টা, যিনি স্থানীয় পর্যায়ের একটি ব্যবসাকে স্যামসাংকে বিশ্বের শীর্ষ পর্যায়ের উদ্ভাবন প্রতিষ্ঠান ও ইন্ডাস্ট্রিয়াল শক্তিতে পরিণত করেছিলেন। তার এই অবদান চিরদিন স্মরণীয় থাকবে।”
স্যামসাং পারিবারিকভাবে নিয়ন্ত্রিত বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান। বিশ্বের দ্বাদশ বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ দক্ষিণ কোরিয়ার ব্যবসা-বাণিজ্যে তাদের একচ্ছত্র আধিপত্য।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close