সঠিক মূল্য নির্ধারণ বাড়িঘর বিক্রয়ে ইতিবাচক ভূমিকা রাখছে

ব্রিটেনে লকডাউন শেষে প্রপার্টি মার্কেট খোলার পর মে মাসের মধ্যভাগে এবং জুলাইয়ের শেষে বিক্রয়ের জন্য উপস্থাপিত ৩ লাখ বাড়িঘরের অগ্রগতি বিষয়ক এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, সেপ্টেম্বরের শুরুতে মূল্যহ্রাসকৃত ৩টি বাড়ির মধ্যে ১টি একজন ক্রেতা পেয়েছে। যে সব বাড়ির মূল্য কেটে ছেঁটে কমানো হয়নি, সেগুলোর ক্ষেত্রে ৬৩ শতাংশই বিক্রি হওয়ার সম্ভাবনা লক্ষ্য করা গেছে।

রাইটমুভ কর্তৃক পরিচালিত গবেষণায় দেখা গেছে, প্রকৃতভাবে মূল্য নির্ধারণকৃত বাড়িসমূহ বিক্রয়ের ক্ষেত্রে সময় লেগেছে গড়ে মাত্র ২১ দিন। অপরদিকে যেসব বাড়ির মূল্য হ্রাস করা হয়,সেগুলোর ক্রেতা পেতে সময় লাগে ৪৭ দিন। সম্পত্তি বিক্রয়ে মূল্যহ্রাস যুক্তরাজ্যে একটি সাধারণ ব্যাপার। মে থেকে লন্ডনের প্রতি ৫টির মধ্যে ১টি সম্পত্তির মূল্যে গড়ে ৫ শতাংশ পতন ঘটে।
রাইটমুভ-এর সম্পত্তি উপাত্ত পরিচালক টিম ব্যানিস্টার হুঁশিয়ার করে দিয়ে বলেন, যদি বিক্রেতারা বিক্রয়ের ব্যাপারে সিরিয়াস হন,তবে শুরুতে খুব বেশী দর হাঁকা অহেতুক বিলম্বের কারণ হতে পারে এবং এক্ষেত্রে শেষ পর্যন্ত একজন ক্রেতা পাওয়ার সম্ভাবনা অনেক কমে যায়।
শেফার্ডস্থ উইংক ওয়ার্থ ইস্টেট এজেন্টস-এর বিক্রয় ব্যবস্থাপক বুশ সাইমন ওয়ালার বলেন, একই এলাকায় বিক্রিত একই ধরনের বাড়িঘরের মূল্যের সাথে সংগতি রেখে বাড়িঘরের সঠিক মূল্যায়ন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
তিনি আরো বলেন, তখন আপনি প্রথম কয়েক সপ্তাহে ব্যস্ত তৎপরতা দেখতে পাবেন এবং এমনকি ক্রয়ের চেষ্টারত বেশ কিছু লোক পেয়ে যাবেন। আপনি একটি দ্রুততর ও সুষ্ঠু লেনদেন প্রত্যক্ষ করবেন। আর যদি আপনি মূল্য কর্তন করেন, তবে আপনি আপনার নতুন উজ্জ্বল পরামর্শগত আবেদন হারাবেন।
ওয়ালার বলেন, ক্রেতারা হালনাগাদ স্থানীয় মূল্য পর্যায়গুলো সম্পর্কে ভালো খবরাখবর রাখেন। একই ধরনের সম্পত্তির জন্য অন্যেরা কেমন অর্থ পরিশোধ করেছেন, এ ব্যাপারে তারা সচেতন। তারা এর বেশী যেতে চান না। অনেক মালিক মনে করেন যে, একটি ব্যয়বহুল রান্নাঘর কিংবা সুসজ্জিত বেডরুম তাদেরকে বাড়তি অর্থ পাইয়ে দেবে। এক্ষেত্রে ওয়ালফেয়ার অভিমত হচ্ছে, যদি কেউ আপনার বিশেষ রান্নাঘর চান, তবে তারা আপনাকে নিকটবর্তী বাড়ির তুলনায় কয়েক হাজার পাউন্ড অতিরিক্ত দিতে পারে।
কিন্তু এর চেয়ে বেশি প্রত্যাশা করা ঠিক হবে না। বিভিন্ন কারণে বাড়িঘরের মূল্য অতিরিক্ত হতে পারে। এর মধ্যে রয়েছে নিচে পড়ে থাকা মার্কেটের দ্রুত স্থান পরিবর্তন, যৌক্তিক ভুল ত্রুটি, এবং অসাধু এজেন্টগণ কর্তৃক ইনস্ট্রাকশন লাভের জন্য অবাস্তব উচ্চমূল্য হাঁকা। চলতি গ্রীস্মে একটি দীর্ঘ চার বছর অপেক্ষার পর নীল গ্যালেংহার শেষ পর্যন্ত লিটল ডেনিসে ৮ মিলিয়ন পাউন্ডে তার বাড়ি বিক্রয়ে সক্ষম হন। ২০১৬ সাল থেকে ৬ বেড রুমের গ্রেড টু’তে তালিকাভুক্ত টাউনহাউস বিক্রয়ের অপেক্ষায় ছিলো এবং হাই ফ্লায়িং বার্ডস ফ্রন্টম্যান এবং সাবেক ওয়েসিস সংগীত শিল্পীকে চাহিত অর্থ থেকে সাড়ে ৩ মিলিয়ন পাউন্ড ছেঁটে ফেলতে হয় একটি চুক্তি কর্তনের জন্য।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close