৭০ পয়েন্ট না পেলে ভিসা দেবে না

ব্রিটেনে পয়েন্টভিত্তিক অভিবাসন নীতি ঘোষণা, জেনে নিন পয়েন্ট পদ্ধতি

সর্বনিম্ন বেতন ৩০ হাজার পাউন্ড থেকে নামিয়ে ২৫ হাজার ৬০০ পাউন্ড

ব্রেক্সিট-পরবর্তী নয়া ব্রিটেনে পয়েন্টভিত্তিক অভিবাসন নীতি ঘোষণা করেছে বরিস জনসনের সরকার। কম দক্ষদের চেয়ে ভবিষ্যতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের দক্ষ কর্মীদের অভিবাসী হিসেবে পেতে চায় ব্রিটেন। তাই বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারী) পয়েন্টভিত্তিক একটি অভিবাসন পরিকল্পনা প্রকাশ করেছে দেশটি। এ নীতি অনুযায়ী, যুক্তরাজ্যে কাজ করতে হলে অভিবাসীদের যোগ্যতার ভিত্তিতে সবমিলিয়ে ৭০ মার্কস পেতে হবে। অর্থাৎ ৭০ পেলে পাস, এর কম পেলে ফেল। আর ফেল করলে তিনি অদক্ষ শ্রমিক হিসেবে বিবেচিত হবেন। তাদের ভিসা দেবে না ব্রিটেন সরকার।

চূড়ান্তভাবে ব্রেক্সিট কার্যকরের পর থেকে কম দক্ষতাসম্পন্ন কর্মীদের আর ভিসা দেবে না যুক্তরাজ্য। নিয়োগকর্তাদের আহ্বান জানিয়ে বলা হয়েছে, তারা যেন ইউরোপ থেকে আসা ‘সস্তা শ্রমিক’-এর ওপর নির্ভর না করে কর্মী ধরে রাখা এবং অটোমেশন প্রযুক্তি উন্নয়নের ওপর জোর দেন। নতুন প্রস্তাব অনুযায়ী রেস্টুরেন্ট, হোটেল, সেবা খাত এবং খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ কারখানায় দক্ষতাহীন কোনও অভিবাসী চাকরি করতে পারবে না। স্বরাষ্ট্র দফতর জানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও এর বাইরের যেসব নাগরিক যুক্তরাজ্যে আসতে চায়, তাদের ৩১ ডিসেম্বর ইউকে-ইইউ ফ্রি মুভমেন্ট বন্ধ হওয়ার পর একই মাপকাঠিতে যাচাই করা হবে।

সরকার বলছে, তারা সার্বিকভাবে যুক্তরাজ্যে অভিবাসীদের আগমন কমানোর চেষ্টা করছে। নিজেদের নির্বাচনি তফসিল অনুযায়ী একটি ‘পয়েন্টভিত্তিক’ অভিবাসন ব্যবস্থা তৈরি করতে চায় তারা। সরকার মনে করে নতুন কর্মী না বাড়িয়ে যে ৩২ লাখ ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের নাগরিক যুক্তরাজ্যে থাকার অনুমতি চেয়েছে তাদের দিয়েই শ্রমজাবারের চাহিদা মেটানো যেতে পারে। পাশাপাশি, কৃষিখাতে মৌসুমি শ্রমিক আসার অনুমোদিত পরিমাণ চার গুণ বাড়িয়ে ১০ হাজার করতে যাচ্ছে সরকার। এছাড়া ‘ইয়ুথ মোবিলিটি অ্যাগ্রিমেন্ট’-এর অধীনে প্রতি বছর ২০ হাজার তরুণ যুক্তরাজ্যে আসার সুযোগ পাবে।

পয়েন্টভিত্তিক স্কিমের আওতায় বিদেশি কর্মী যারা যুক্তরাজ্যে আসতে চান, তাদের ইংরেজি জানা ও বলার দক্ষতা থাকতে হবে এবং ‘অনুমোদিত স্পনসর’ ও দক্ষতা সম্পন্ন হিসেবে একটি কাজের অফার থাকতে হবে। এই তিন শর্ত পূরণ করলে তারা ৫০ পয়েন্ট পাবেন। সব মিলিয়ে কোনো অভিবাসীকে অন্তত ৭০ পয়েন্ট নিশ্চিত করতে হবে। এর মধ্যে যোগ্যতা, যে বেতনে আসতে চান এবং কর্মীর অভাব রয়েছে, এমন কোনো কাজে এলে সেক্ষেত্রে পয়েন্ট নির্দিষ্ট রয়েছে।

বুধবার ব্রিটেন সরকারের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ১০ পৃষ্ঠার নতুন অভিবাসন নীতির সংক্ষিপ্ত বিবরণ:
১. অদক্ষ শ্রমিকদের জন্য যুক্তরাজ্যের সীমান্ত বন্ধ হবে। সব অভিবাসীকে অবশ্যই ইংরেজীতে কথা বলতে পারতে হবে
২. যুক্তরাজ্যে কেউ আসতে চাইলে তাকে অবশ্যই কমপক্ষে ২৫ হাজার ৬০০ পাউন্ড বেতনের একটি চাকরির অফার নিয়ে আসতে হবে। তবে নার্স বা এরকম কিছু চাকরির ক্ষেত্রে বিশেষ বিবেচনায় ন্যূনতম বেতন ২০ হাজার ৪৮০ পাউন্ড এবং দক্ষতার ক্ষেত্রেও কিছুটা ছাড় দেয়া হতে পারে
৩. তথাকথিত আত্মনির্ভরশীল কোনো লোককে যুক্তরাজ্যে আসার অনুমতি দেয়া হবে না। যেমন: পোলিশ ছুতার মিস্ত্রি বা রোমানিয়ান ঘরামি (ঘর নির্মাণ কারিগর) এরা চাকরি ঠিক না করে আসতে পারবে না
৪. সীমান্তে ফ্রান্স, ইতালি এরকম দেশ থেকে আগমন প্রত্যাশীদের আর শুধু আইডি কার্ড গ্রহণ করা হবে না। ইউরোপীয় ইউনিয়নের বাইরের কেউ যাতে জাল বা চুরি করা আইডি ব্যবহার করে ব্রিটেনে ঢুকতে না পারে সে জন্যই এ ব্যবস্থা
৫. এ-লেভেল বা সমমানের যোগ্যতা থাকলে সেসব বিদেশীর ক্ষেত্রে ন্যূনতম যোগ্যতার সীমা শিথিল করা হবে। দক্ষ কর্মী নেয়ার সর্বোচ্চ সীমাও কমিয়ে আনা হবে। উচ্চমানের দক্ষতা সম্পন্ন কিছু লোককে চাকরির অফার ছাড়াই অভিবাসনের সুযোগ দেয়া হবে
৬. শিল্পী, চিত্তবিনোদনদানকারী, খেলোয়াড় এবং মিউজিশিয়ানরা পারফরমেন্স, প্রতিযোগিতা এবং অডিশনে অংশ নেয়ার জন্য আগের নিয়মেই আসতে পারবেন

আগামী বছরের জানুয়ারি থেকে এসব বিধান কার্যকর হবে। এর আগেই ব্যবসায়ীদের প্রস্তুত করতে সরকার ব্যাপকভিত্তিক প্রচার প্রচারণার উদ্যোগ নিয়েছে। তবে ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তারা বিষয়টি মেনে নিতে পারছেন না। বিশেষ করে হোটেল রেস্টুরেন্টের ওয়েটার, কৃষি, মৎস্য খামারের মতো কম দক্ষ কর্মী পেতে খুব সমস্যা হবে বলে মনে করছেন তারা।

প্রস্তাবিত পয়েন্ট পদ্ধতি
প্রয়োজনীয় যোগ্যতা পয়েন্ট
অনুমোদিত স্পন্সরের কাছ থেকে চাকরির প্রস্তাব ২০
যথাযথ দক্ষতার কাজ ২০
প্রয়োজনীয় ইংরেজি দক্ষতা ১০
বেতনের জন্য পয়েন্ট পয়েন্ট
২০,৪৮০-২৩,০৩৯ পাউন্ড
২৩,০৪০-২৫,৫৯৯ পাউন্ড ১০
২৫,৬০০ বা তার চেয়ে বেশি ২০
অতিরিক্ত পয়েন্ট পয়েন্ট
যেসব ক্ষেত্রে কর্মী কম সেসব ক্ষেত্রে চাকরি ২০
কাজের সাথে সম্পর্কিত বিষয়ে পিএইচডি ১০
বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, ইঞ্জিনিয়ারিং ও ম্যাথমেটিকসে পিএইচডি ২০

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close