ইংরেজী শিক্ষায় অগ্রগতির র‌্যাংকিয়ে ব্ল্যাকবার্ন মুসলিম গার্লস স্কুল শীর্ষ

ব্ল্যাকবার্নের ‘তওহিদুল ইসলাম গার্লস’জ হাই স্কুল- (টিআইজিএইচএস)’ প্রাইমারী স্কুলের শেষভাগ থেকে জিসিএসই পরীক্ষাসমূহে একটি প্রত্যাশিত অগ্রগতির মানদন্ডের ওপরে অর্থাৎ শিক্ষাগত অগ্রগতির র‌্যাংকিয়ে সর্বোচ্চ স্কোর অর্জন করেছে। স্কুলটিতে শিক্ষার্থীদের সংখ্যা ১২০ জন। অন্য ৬টি মুসলিম স্কুল একই তালিকায় ব্রিটেনে জাতীয়ভাবে শীর্ষ ২০টি স্কুলের মধ্যে স্থান পেয়েছে। সেগুলো হচ্ছে বার্মিংহামের ইডেন বয়েজ স্কুল, কভেন্ট্রির ইডেন গার্লস’জ স্কুল, প্রেস্টন মুসলিম গার্লস হাই স্কুল, ওয়ালটাম ফরেস্টের ইডেন গার্লস’জ হাইস্কুল, স্লাফের ইডেন গার্লস’জ হাই স্কুল এবং বোল্টন মুসিলম গার্লস স্কুল। ‘প্রোগ্রেস এইট’ শিরোনামে টিআইজিএইচএস এই চতুর্থ বছরের ন্যায় দেশব্যাপী সর্বোচ্চ মূল্যবান র‌্যাংকটি অর্জন করেছে। ‘প্রোগ্রেস-এইট’ হচ্ছে সরকারের মূল তৎপরতার মাপাকাঠি যাতে দেশব্যাপী একই ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তুলনায় স্কুলসমূহের শিক্ষার্থীদের অগ্রগতি প্রতিফলিত হয়। স্কুলটির ৮৩ শতাংশ শিক্ষার্থী ইংলিশ ও গণিতে একটি ‘স্ট্রং পাস’ অর্থাৎ ‘জোরদার পাশ’ অর্জন করেছে, যখন ৬৫ শতাংশ ইংরেজী বিষয়ে লাভ করেছে ‘ইংলিশ বাক্কালরিয়েট’।

স্কুলটির পরিচালনার দায়িত্বে নিয়োজিত স্টার একাডেমীজ-এর প্রধান নির্বাহী মুফতী হামিদ প্যাটেল বলেন, কঠিনতর পরীক্ষা সত্বেও আমাদের চমৎকার শিক্ষার্থীরা জীবন পরিবর্তনকারী সাফল্য অর্জনে আসলেই কঠোর পরিশ্রম করেছে। এক্ষেত্রে তারা তাদের নিবেদিতপ্রাণ পিতামাতা এবং আমাদের চমৎকার শিক্ষক ও সহায়ক স্টাফদের কাছে অনেক ঋনী।

তিনি আরো বলেন, যা-ই হোক, এটা শুধুমাত্র এক্সেলেক্ট গ্রেইড নয়। আমরা এজন্যেও গর্বিত যে, আমাদের নবীন নারীরা ভালো চরিত্র গঠন করেছে, তথ্য লাভ করেছে, দায়িত্বশীল নাগরিক হয়েছে এবং তাদের সম্প্রদায়সমূহের সেবায় একটি আবেগাত্মক প্রতিশ্রুতি অর্জন করেছে।

তিনি বলেন, এটা একটি বিশেষ স্কুল। এটা শুধু এর শিক্ষক, সহায়ক স্টাফ ও অধ্যয়নরত চমৎকার তরুণী নারীদের প্রদর্শিত কার্যনীতি ও কমিউনিটি চেতনার জন্যই নয় বরং আমরা এজন্য বিশেষভাবে গর্বিত যে, আমাদের ঐসব মেয়ে যাদের অধিকাংশেরই অসচ্ছল পারিবারিক পটভূমি রয়েছে কিংবা যারা প্রাইমারী স্কুলে পড়াশোনায় সংগ্রাম করেছে, তারা এতোটা অগ্রগতি লাভে সক্ষম হয়েছে। বিগত বছরগুলোতে টিআইজিএইচএস অনেকগুলো পুরস্কার অর্জন করেছে।

২০১৯ সালে ডিসেম্বরে, স্কুলটি ‘সানডে টাইমস্ নর্থওয়েস্ট সেকেন্ডারী স্কুল অব দ্য ইয়ার’ পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়। পত্রিকাটি স্কুলের সাফল্যকে ‘বিস্ময়কর’ বলে উল্লেখ করে। ২০১৪ সালের মার্চে স্কুলটি অফস্টেড ইন্সপেক্টরগণ কর্তৃক একটি ‘আউটস্ট্যান্ডিং’ অর্থাৎ ‘অনন্য’ র‌্যাংকিং লাভ করে। এটা তৃতীয় বারের মতো এই সর্বোচ্চ পুরস্কার অর্জন। তারা তাদের পরিদর্শন প্রতিবেদনে অফস্টেঢ স্কুলটির ‘ব্যতিক্রমধর্মী অগ্রগতি’ এবং ‘অনন্য নেতৃত্বে’র প্রশংসা করেন।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close