ইসলামাবাদে লাখো জনতার আজাদি মার্চ

পাকিস্তান ইমরান খানের পদত্যাগের দাবিতে প্রভাবশালী রাজনৈতিক দল জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের আজাদি মার্চ রাজধানী ইসলামাবাদে প্রবেশ করেছে। সোমবার করাচি থেকে শুরু হওয়া এ আজাদি মার্চ বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানী ইসলামাবাদ পৌঁছায়। এই মার্চে নেতৃত্ব দিচ্ছেন মাওলানা ফজলুর রহমান। এছাড়া বেনজির ভূট্টোর পিপিপি ও মুসলিম লীগ, মুসলিম লিগসহ (নওয়াজ) বেশ কয়েকটি দল এই মার্চে যোগ দিয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাতে আজাদি মার্চের অংশগ্রহণকারীদের স্বাগত জানিয়ে বক্তব্য দিয়েছেন পিপিপি প্রধান ও বেনজির ভূট্টোর পুত্র বিলওয়াল ভুট্টো জারদারি। মাওলানা ফজলুর রহমানের নেতৃত্বে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বিরোধী আজাদি মার্চে কয়েক লাখ মানুষ অংশ নিয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে লাখো জনতার বহর নিয়ে ইসলামাবাদে ঢুকলেন মাওলানা ফজলুর রহমান। ইসলামাবাদে প্রবেশের সময় পিপিপি ও মুসলিম লীগের পক্ষ থেকে স্বাগত জানানো হয়। এ জন্য বিভিন্ন স্থানে স্বাগত শিবিরও স্থাপন করেছে তারা।

পাকিস্তানি ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করে কয়েক হাজার গাড়ি নিয়ে এ পদযাত্রায় অংশ নিয়েছে আন্দোলনকারীরা। ইমরানবিরোধী ‘গো নিয়াজি গো’ স্লোগানসহ সরকারবিরোধী প্রচারণায় পুরো সড়ক পথ মুখরিত করে রেখেছেন তারা। ২০১৮ সালের ২৫ জুলাইয়ের নির্বাচন প্রত্যাখ্যান ও দেশের অর্থনৈতিক অবনতির দায়ে ইমরান খান সরকারের পদত্যাগের বিষয়ে একমত হয়েছেন বিরোধীরা।

ইসলামাবাদ প্রবেশের সময় স্বাগত ভাষণে মাওলানা ফজলুর রহমান বলেন, আজাদি মার্চ এখন জাতীয় আন্দোলনে পরিণত হয়েছে। এ বিষয়ে সবাই একমত যে বর্তমান সরকার একটি ভুয়া নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় এসেছে। এ ভুয়া সরকারকে দেশের জনগণ আর চায় না। তিনি ইমরানকে ‘পুতুল’ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আখ্যায়িত করেন।

সরকারকে পদত্যাগের আলটিমেটাম দিয়ে তিনি বলেছিলেন, যদি আগস্টের মধ্যে ইমরান খান পদত্যাগ না করে তাহলে অক্টোবরে সারা দেশ ইসলামাবাদ অভিমুখে মার্চ করবে। রাতে অবস্থান শেষে শুক্রবার জুমার নামাজের পর ইসলামাবাদে মহাসমাবেশ করবে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close