১০ লাখ হাফেজ বানিয়ে বিশ্ব রেকর্ড পাকিস্তানী মাদ্রাসার

দশ লাখ ছাত্রকে কুরআন-ই-হাফেজ বানিয়ে বিশ্ব রেকর্ড গড়ল পাকিস্তানের ওয়াফাক-উল-মাদারিস মাদ্রাসা। চলতি বছরে ৭৮ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী এই মাদ্রাসা থেকে হাফেজ-ই-কুরআন হয়েছে। তাদের মধ্যে ১৪ হাজার ছাত্রীও ছিল। এর মাধ্যমে ১৯৮২ সালে প্রতিষ্ঠিত এই মাদ্রাসায় পবিত্র কুরআন মুখস্থ করে হাফেজ হওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১০ লাখের মাইলস্টোন স্পর্শ করল।

ওয়াফাক-উল-মাদারিস মাদ্রাসার অধ্যাক্ষ ক্বারী হাফেজ জালান্ধারি বলেন, চার বছর বয়স থেকেই শিক্ষার্থীরা আমাদের মাদ্রাসায় ভর্তি হতে পারে এবং মাত্র দুই বছরে পবিত্র কুরআন মুখস্থ করে হাফেজ হতে পারে। এই মাদ্রাসায় পবিত্র কুরআন মুখস্থের পাশাপাশি শিশুদের মৌলিক শিক্ষা দেওয়া হয় যার মধ্যে ইংরেজি, উর্দু, গণিত, পাকিস্তান স্টাডিজ এবং বিজ্ঞানও রয়েছে।

সউদী আরবের সাথে পাকিস্তানের হাফিজ-ই-কুরআন হওয়ার বার্ষিক পরিসংখ্যান তুলনা করে হাফেজ জালান্ধারি বলেন, সউদী আরবে প্রতি বছর মাত্র পাঁচ হাজার শিক্ষার্থী হাফিজ-ই-কুরআন হয়। তিনি বলেন, ‘এই বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে যে, আরবি আমাদের জাতীয় ভাষা না হলেও সেখানকার তুলনায় পাকিস্তানে বেশী শিক্ষার্থী পবিত্র কুরআন মুখস্থ করে।’ তবে তিনি এও জানান যে, সউদী সরকারও ওয়াফাক-উল-মাদারিসের প্রচেষ্টার প্রশংসা করেছে এবং এটিকে পুরস্কৃত করেছে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Close