সংযুক্ত আরব আমিরাতের জাতীয় দিবস আজ

৪৭ বছরে বিশ্বের নিরাপদ দেশের তালিকায় দ্বিতীয়

আজ ২ ডিসেম্বর সংযুক্ত আরব আমিরাতের ৪৭তম জাতীয় দিবস। দিবসটি উপলক্ষে এক বাণীতে দেশটির প্রেসিডেন্ট শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল-নাহিয়ান নাগরিকদের সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করেন এবং তার পিতা মরহুম প্রেসিডেন্ট শেখ জায়েদ বিন সুলতান আল নাহিয়ানের অনুসৃত নীতিমালার আলোকে আমিরাতকে আরো এগিয়ে নেয়ার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

১৯৭১ সালের এদিনে বৃটিশ সাম্রাজ্য থেকে দেশটি স্বাধীনতা লাভ করে। সে থেকেই এদিনটিকে জাতীয় দিবস হিসেবে পালন করে আসছে আমিরাত। স্বাধীনতা লাভের পর প্রেসিডেন্ট শেখ জায়েদ বিন সুলতান আল নাহিয়ান অর্থনৈতিক অবকাঠামোগত উন্নয়নে দেশটির উষর মরুভূমিকে রূপ দিয়েছেন সবুজের আঙিনায় অট্টালিকায় সাজানো এক স্বপ্নের রাজ্যে। প্রেসিডেন্ট ছিলেন তার দেশের নাগরিকদের পাশাপাশি প্রবাসীদের জন্যও এক মানবরূপী রহমতের ছায়া। তার মৃত্যুতে কেঁদেছেন প্রবাসীরাও।

২০০৪ সালের ২ নভেম্বর প্রেসিডেন্ট শেখ জায়েদ বিন সুলতান আল নাহিয়ানের ইন্তেকালের পর প্রেসিডেন্ট শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ান উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখে আরো কয়েক ধাপ এগিয়ে নেন আমিরাতকে। স্বাধীনতা লাভের ৪৭ বছরে দেশটি এখন অপূর্ব সৌন্দর্যের এক লীলাভূমি এবং বিশ্বের বসবাসযোগ্য নিরাপদ দেশের তালিকায় দ্বিতীয়। সম্প্রতি গালফ নিউজ ও খালিজ টাইমসেও এ তথ্য প্রকাশ করা হয়। তাছাড়া ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্ট ২০১৬ অনুযায়ী বিশ্বের সুখী দেশের তালিকায় আমিরাত ২৮তম এবং আরব দেশগুলোর মধ্যে প্রথম। দিবসটি উপলক্ষে সরকারি ও বেসরকারিভাবে নেয়া হয়েছে ব্যাপক আয়োজন। বিশেষ করে দিবসটি উপলক্ষে দেশটির সকল প্রদেশের কারাগার থেকে ১ হাজার ৯০০ কারাবন্দিকে মুক্তি দেয়া হচ্ছে। আমিরাতের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা ওয়্যাম এ তথ্য জানায়। দেশটির সর্বত্রই যেন সাজ সাজ রব। দিবসটি ঘিরে রয়েছে বিমান মহড়া ও আরব সংস্কৃতি ঐতিহ্যের নানা রকম অনুষ্ঠানমালা।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Close