ব্রেক্সিট পরিকল্পনা ঝুঁকিতে না ফেলতে থেরেসা মে’র আহ্বান

theresaব্রিটেনের ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ মন্ত্রীদের প্রতি ব্রেক্সিট পরিকল্পনাকে ঝুঁকিতে না ফেলার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। সম্প্রতি বেশ কয়েকজন ব্রেক্সিট সমর্থক মে’র ‘ব্রেক্সিট হোয়াইট পেপার’ নিয়ে অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে। কেননা এই পেপার অনুযায়ী ব্রেক্সিটের পরে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের (ইইউ) সঙ্গে বাণিজ্যের ক্ষেত্রে একই নিয়ম অনুসরণ করতে হবে ব্রিটেনকে।
খবরে বলা হয়, ব্রেক্সিটের পর ইইউ’র সঙ্গে ব্রিটেনের সম্পর্ক কেমন হবে ‘হোয়াইট পেপারে’ তাই উল্লেখ করা আছে। কিন্তু ওই নথিপত্রে প্রস্তাবিত অনেক বিষয়েই মে’র দলের মধ্যে বিতর্ক দেখা দিয়েছে।
দ্য মেইলে প্রকাশিত এক নিবন্ধে মে রবিবার, দেশবাসীদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন, তারা যাতে তাদের চোখ পুরস্কারের ওপর রাখে। আগামী সপ্তাহে বাণিজ্য ও কাস্টমস নীতি নিয়ে হাউজ অফ কমন্সে গুরুত্বপূর্ণ ভোটাভুটি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এর আগে এমন আহবান জানালেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী।
মে’র দলের ইউরোপিয়ান রিসার্চ গ্রুপের (ইআরজি) কয়েকজন সদস্য তার প্রস্তাবিত ইইউ বিষয়ক সংবিধান বা হোয়াইট পেপারসে পরিবর্তন আনতে চান। কিন্তু তেমনটি করলে ঝুঁকিতে পড়তে পারে মে’র ব্রেক্সিট পরিকল্পনা।
উল্লেখ্য, দ্য হোয়াইট পেপার প্রকাশের পরপরই মে’র মন্ত্রীসভা থেকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও ব্রেক্সিটমন্ত্রী হিসেবে যথাক্রমে পদত্যাগ করেন বরিস জনসন ও ডেভিড ডেভিস।
টরি ব্রেক্সিট সমর্থক জ্যাকব রিস মগ হোয়াইট পেপারে প্রস্তাবিত পরিকল্পনাটিকে ব্রিটেনের জন্য মন্দ চুক্তি বলে বর্ণনা করেছেন। তাছাড়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, মে’র ব্রেক্সিট চুক্তির কারণে যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে কোন দ্বিপক্ষীয় চুক্তি নাও হতে পারে। অবশ্য কয়েক ঘণ্টা পর তিনি স্ব-বিরোধী এক মন্তব্যে জানিয়েছেন, দুই দেশের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় চুক্তি সম্ভব। -বিবিসি

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Close