মুসলিম বিশ্ব

বিন সালমান বেঁচে আছেন

সউদী কর্তৃপক্ষের ছবি প্রকাশ

mohammedইরানের গণমাধ্যম সম্প্রতি দাবি করছে, মৃত্যুর কারণেই দীর্ঘদিন জনসমক্ষে আসছেন না সউদী যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। কারণ হিসেবে যে ধারণার কথা বলা হয় তা হচ্ছে, গত ২১ এপ্রিল সউদী রাজপ্রাসাদে অভ্যুত্থানের চেষ্টার সময় দেশটির প্রভাবশালী এই যুবরাজ সম্ভবত মারা যান।
ইরানের দৈনিক কায়হানের বরাত দিয়ে রাশিয়ার স্পুটনিক পত্রিকা এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানায়। কায়হান-এর প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, সউদী আরবের অভ্যন্তরে ঘটে যাওয়া ঘটনাটি একটি গোয়েন্দা সংস্থার ফাঁস হওয়া প্রতিবেদনের মাধ্যমে জানা গেছে।
প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, গত ২১ এপ্রিল রিয়াদের রাজপ্রাসাদে সহিংসতার সময় সউদী যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের শরীরে দুটি বুলেট আঘাত হানে। এরপর থেকে তাকে আর জনসমক্ষে দেখা যায়নি। যা থেকে ধারণা তৈরি হয়েছে যে, সম্ভবত তিনি মারা গেছেন।
ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন চ্যানেল প্রেস টিভিও প্রচার করছিল যে, অভ্যুত্থান ঘটনার পর থেকে সউদী কর্তৃপক্ষ যুবরাজের কোনো ছবি অথবা ভিডিও প্রকাশ করেনি। দেশটির অপর সংবাদমাধ্যম ফার্স জানায়, নানা ঘটনার কারণে সৌদি যুবরাজকে প্রতিদিনই বিশ্বের গণমাধ্যমে দেখা যেতো। কিন্তু রাজপ্রাসাদের ঘটনার পর প্রায় এক মাস হতে চলছে, তিনি সম্পূর্ণ অনুপস্থিত। যা প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে।
অবশ্য সউদী যুবরাজের মৃত্যু রহস্য যখন ক্রমেই দানা বাঁধছে, ঠিক তখন আশঙ্কা উড়িয়ে দিতে সউদী কর্তৃপক্ষ ৩২ বছর বয়সী বিন সালমানের ছবি প্রকাশ করেছে। এসপিএ তাদের টুইটার পাতায় শুক্রবার যুবরাজ সালমানের ছবি প্রকাশ করেছে।
টুইটার পোস্টে বলা হয়, সউদী ক্রাউন প্রিন্স এমবিএস বেঁচে আছেন এবং সুস্থ আছেন। সেই পোস্টে, গণমাধ্যমে সম্প্রতি তাকে ঘিরে অপপ্রচারেরও সমালোচনা করে কর্তৃপক্ষ। প্রকাশিত ছবিতে মিসরের প্রেসিডেন্ট ফাত্তাহ আল সিসি এবং আবুধাবি ও বাহরাইনের নেতাদের সঙ্গে যুবরাজকে দেখা যায়।
তবে টুইটারে প্রকাশিত ছবিতেও রহস্যের জট কাটছে না। কর্তৃপক্ষের প্রকাশিত ছবিটি স্থিরচিত্র হওয়ায় সেটি যুবরাজ বিন সালমানের সাম্প্রতিক ছবি কিনা সেই রহস্য রয়েই গেছে।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Close