তুরস্কে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৮৪ লাখ

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান বলেছেন, গত ১৮ বছরে তুরস্কে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১৬ লাখ থেকে ৮৪ লাখে উন্নীত হয়েছে। তুরস্কের উচ্চ শিক্ষা দেশটির সীমানা ছাড়িয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ছড়িয়ে পড়েছে। রাজধানী আংকারায় উচ্চ শিক্ষা পরিষদ-এর একটি প্রকল্প উপস্থাপন সভায় ভাষণ দানকালে তিনি একথাগুলো বলেন।

তিনি বলেন, তুরস্কে বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা ৭৬ থেকে ২০৭-এ উন্নীত হয়েছে। আর এসব প্রতিষ্ঠানের স্টাফ মেম্বারদের সংখ্যা ৭০ হাজার থেকে ১লাখ ৮০ হাজারে উন্নীত হয়েছে। আমাদের নারী শিক্ষার্থীর সংখ্যা এই বৃদ্ধির ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। চলতি বছর নারী শিক্ষার্থী বৃদ্ধির হার ৪২ শতাংশ থেকে ৪৯ শতাংশে বৃদ্ধি পেয়েছে। তুরস্ক এখন বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার ক্ষেত্রে ইউরোপের শীর্ষস্থানে রয়েছে।
এরদোগান আরো বলেন, তুরস্কের উচ্চশিক্ষা ব্যবস্থায় নারী শিক্ষার্থীদের সংখ্যা এক্ষেত্রে ইউরোপীয় ইউনিয়নের গড় সংখ্যার চেয়ে ৫ শতাংশ বেশী। আমাদের উচ্চশিক্ষার বাজেট তাৎপর্যপূর্ণভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে, যা চলতি বছরে ৩৫০ মিলিয়ন ডলার থেকে বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক শূণ্য ৫ বিলিয়ন ডলারে।
প্রেসিডেন্ট আরো বলেন যে, উন্নয়ন শুধু সংখ্যার দিক দিয়ে নয় বরং সরকার গুণগত মান সম্পন্ন কাঠামোগত রূপান্তরের দিকে বিশেষভাবে লক্ষ্য রেখেছেন। তুরস্কে বর্তমানে বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে থেকে আগত ২ লাখ শিক্ষার্থী উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করছে।
তিনি বলেন, ইউনেস্কো’র পরিসংখ্যান অনুযায়ী, বিদেশী শিক্ষার্থী ভর্তির ক্ষেত্রে তুরস্ক বিশ্বের শীর্ষ দশ দেশের মধ্যে রয়েছে। ২০০১ সাল থেকে তুরস্ক বলোগনা প্রোসেস-এর একটি অংশ, যা উচ্চশিক্ষা ক্ষেত্রে ৪৮টি ইউরোপীয় দেশের মধ্যে একটি সহযোগিতা ব্যবস্থা।
তিনি বলেন, এই প্রক্রিয়ার অধীনে প্রতি ২ থেকে ৩ বছরে মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় সকল স্বাক্ষরকারী দেশের তৎপরতা মূল্যায়নের জন্য এবং নতুন লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। ‘ইউরোপীয় উচ্চশিক্ষা ক্ষেত্র’ সংক্রান্ত গত সভায় প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে দেখা গেছে, ইউরোপে শিক্ষার্থীদের সংখ্যার দিক দিয়ে তুরস্কের স্থান প্রথম।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close