বিজয়ের দিনে শ্রদ্ধা ভালোবাসায় শহীদের স্মরণ

আজ ১৬ ডিসেম্বর। মহান বিজয় দিবসের ৪৯তম বার্ষিকী। বাঙালি জাতির জীবনে সবচেয়ে গৌরবোজ্জ্বল অর্জনের স্মৃতিবিজরিত এক দিন। ১৯৭১ সালের এই দিনে পাকিস্তানি হানদার বাহিনীর আত্মসমর্পণের মধ্যদিয়ে বীরের জাতি হিসেবে পৃথিবীর মানচিত্রে আত্মপ্রকাশ ঘটে বাঙালির। জাতি অর্জন করে এক স্বাধীন সার্বভৌম ভূখণ্ড।
দীর্ঘ ৯ মাস বুকের তাজা রক্তে বাংলার মাটি সিক্ত হওয়ার পর ১৯৭১ সালের এই দিনে স্বাধীনতার স্বাদ গ্রহণ করে জাতি। বুকে ধারণ করে বিজয়ের লাল-সবুজ পতাকা। দিনটিকে ঘিরে গভীর শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় বীর সন্তানদের স্মরণ করছে গোটা দেশের মানুষ। বাঙালি জাতির জীবনে সবচেয়ে গৌরবোজ্জ্বল অর্জনের স্মৃতিবিজড়িত দিন মহান বিজয় দিবসে শহীদদের ভালোবাসায় সিক্ত করছেন আবাল-বৃদ্ধ-বনিতারা।
একাত্তরের এই দিনে অর্থাৎ ১৬ ডিসেম্বর বিকেলে তৎকালীন রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) বর্বর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী আত্মসমর্পণ করে যৌথ বাহিনীর কাছে। এর মধ্য দিয়ে স্বাধীনতার রক্তিম সূর্যালোকে উদ্ভাসিত হয় স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ। সেই থেকে ১৬ ডিসেম্বর আমাদের বিজয় দিবস। প্রতিবছর ভাবগাম্ভীর্যে দিনটি সাড়ম্বরপূর্ণভাবে উদযাপন করা হলেও এবার করোনাভাইরাস নামে অদৃশ্য এক শক্তির বিরুদ্ধে লড়ছে মানুষ। ফলে কিছুটা সীমিত পরিসরে ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে দিনটি উদযাপন করছে জাতি।
ভারত ভাগের পর ২৪ বছরের শোষণ-নির্যাতন ও বঞ্চনার পর জাতির ভাগ্যাকাশে এক নতুন সূর্যোদয় ঘটে। প্রভাব সূর্যের রক্তিম আভা ছড়িয়ে পড়ে বাংলাদেশের এ প্রান্ত থেকে ও প্রান্তে। নতুন বার্তা ছয়ে সমস্বরে একটি ধ্বনি গোটা মানচিত্রে প্রতিধ্বনিত হয়- ‘জয় বাংলা, বাংলার জয়, পূর্ব দিগন্তে সূর্য উঠেছে, রক্ত লাল, রক্ত লাল, রক্ত লাল’।
এদিকে বাঙালি তার আপন মহিমায় বিজয়ের দিবসের প্রথম প্রহর থেকেই জাতীয় স্মৃতিসৌধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মানুষের ঢলও বাড়ছে। দিনের শুরুতেই রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে প্রতিরক্ষা সচিব শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন। স্মৃতিসৌধ ঘিরে ফুলের শ্রদ্ধায় নত হয়ে বীর শহীদদের স্মরণ করছেন সাধারণ মানুষ।
যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা থেকে শুরু করে তরুণ যুবক, ছাত্র-শিক্ষক, সাংবাদিক, শিল্পী-বুদ্ধিজীবী, রাজনীতিক, কূটনীতিক, সমাজকর্মীসহ লাখো মানুষ জাতীয় স্মৃতিসৌধের বেদিতে ফুল দিয়ে মহান বীরদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করছেন।
কারো হাতে ফুল কারো হাতে লাল-সবুজের পতাকা। কারো আবার পোশাকে জাতীয় পতাকার রং। সকাল থেকেই জাতীয় স্মৃতিসৌধের পানে ছুটে চলেছেন শহীদদের ভালোবাসায় বরণ করতে। আজ সারা দিনই ৩০ লাখ বীর শহীদ ও সম্ভ্রম হারানো মা-বোনদের কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করবে জাতি।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close