সিদ্ধান্তে অনড় জেনারেল সিসি

মিসরের সেনাপ্রধান জেনারেল আবদেল ফাত্তাহ আল-সিসি মোহামেদ মুরসিকে ক্ষমতাচ্যুত করার পক্ষে তার যুক্তি প্রদর্শন করেছেন। রোববার সেনাবাহিনীর কর্মকর্তাদের সামনে দেয়া এক বক্তৃতায় তিনি তার যুক্তি তুলে ধরে সিসি বলেন, জনগণ মুরসিকে যে ক্ষমতা দিয়েছে, তিনি কেবল তার অপব্যবহারই করেননি, বরং রাষ্ট্রীয় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে সংঘাতের দিকেও ঠেলে দিয়েছেন। ক্ষমতায় থাকার সময় মুরসি গণমাধ্যম, বিচার বিভাগ, পুলিশ, জনমত; এমনকি সেনাবাহিনীর সঙ্গেও সংঘাতে জড়িয়েছেন বলে দাবি করেন সিসি। তবে সেনাবাহিনীর সঙ্গে কী ধরনের বিবাদে মুরসি জড়িয়েছিলেন, সে ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু জানাননি সিসি। এছাড়া সিসি আরো বলেন, ‘দেশের লাখ লাখ লোক যখন মুরসির পতনের জন্য রাস্তায় নেমে আসে, তখন সেনাবাহিনী কোনোভাবেই তা পাশ কাটিয়ে যেতে পারে না।
ক্ষমতাচ্যুত করার আগে মুরসি প্রতি সেনাবাহিনীর ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দেয়ার আগেও সিসি বারবার মুরসিকে বিরোধীপক্ষ এবং জনগণের সঙ্গে আপস করার জন্য তাগাদা দিয়েছেন বলে দাবি করেন সিসি। এছাড়া মিসরের জনগণ এখনো মুরসি নেতৃত্বকে সমর্থন করে কিনা তা যাচাইয়ের জন্য একটি গণভোট অনুষ্ঠানের প্রস্তাব দিয়ে মুরসির কাছে দু’জন দূত পাঠিয়েছিলেন বলে বক্তৃতায় জানান সিসি। এছাড়া বক্তৃতায় একটি গণতান্ত্রিক সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তরের জন্য ব্রাদারহুডসহ মিসরের সব রাজনৈতিক দলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন।
এদিকে সিসির এই বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে ব্রাদরহুডের মুখপাত্র তার টুইটারে জানিয়েছেন, নির্বাচিত কমান্ডার-ইন-চিফ (প্রেসিডেন্ট)-এর নির্দেশ ছাড়া জনগণের নামে কোনো পদক্ষেপ নেয়ার এখতিয়ার সেনাবাহিনীর নেই।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close