একজন প্রিয় ভাই…

এনাম চৌধুরী: একজন সুন্দর মনের মানুষ, একজন সত্যিকারের ভালো মানুষ সৈয়দ আশরাফ ভাই…. বড়মাপের একজন নেতা- একটি দলের সাবেক সেক্রেটারী জেনারেলl একজন প্রভাবশালী মন্ত্রী ছিলেন! অথচ মানুষটার মনে ছিলো না বিন্দুমাত্র অহংকার!! লন্ডনে (বেক্টনে)তিনি আমার প্রতিবেশী ছিলেনl প্রিয় আশরাফ ভাই দেখা হবে না আর … কথা হবে না আর … আর বলবেন না “এনাম তোমার কি কাজে অফ আছে — ওইখানে যাবো ….l”

আশরাফ ভাই শীলা ভাবী চলে গেছেন গত বছর (২০১৮) l নতুন বছরের শুরুতেই আপনি (৩ জানুয়ারী ২০১৯)l প্রিয় আশরাফ ভাই – সত্যিই চলে গেলেন! বিশ্বাস হচ্ছেনা ভাই! আপনি অসম্ভব ভালো মনের একজন মানুষ ছিলেনl সত্যিকারের নিরহংকারী বলতে যা বুঝায় সেটা ছিলেন আপনি সৈয়দ আশরাফ! লোভ-লালসা যাকে স্পর্শ করতে পারেনি!
বাংলাদেশের রাজনীতিতে আজ পাতিনেতারও বিদেশে সেকেন্ট হোম বানায় তখন আপনি আশরাফের একটি এক হাজার পাউন্ড দামের গাড়িও ছিলোনা!!

২০১৩ এক সোমবার “চ্যানেল এস টেলিভিশনের” টক’শো-অভিমত- অনুষ্ঠানে বরাবরের মতোই আমি আওয়ামীলীগের সমালোচনা করেছিলামl তখন আশরাফ ভাই লন্ডনেl পরদিন (মঙ্গলবার) বিকেলে আশরাফ ভাইয়ের ফোন “কি আসবেতো আজ?”-‘বললাম ভাই আসবোl
উনার আড্ডাস্থলে যথারীতি তার সাথে দেখাl আমাকে দেখা মাত্র পাশের চেয়ারটি দেখিয়ে দিয়ে বললেন “এনাম আজ এতো দেরি হলো যে?” অন্য দিনের চেয়ে ঐ দিন আমার কিছুটা দেরি হয়ে যায়l
কিছুক্ষন পর সেখানে উপস্থিত হলেন -যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের একজন ‘তিন-নাম্বার’ সারির নেতা! তিনি জানতেন না-আশরাফ ভাইয়ের সাথে আমার সম্পর্কটা কত গভীর? আমি যে আশরাফ ভাই ও শিলা ভাবীর সাথে পরিবারের সদস্যের মত একজন সেটা বেচারা ভাবনার বাহিরে ছিলোl

ঐ নেতা আমাকে আশরাফ ভাইয়ের সাথে দেখে বিস্মিত হলেন! আশরাফ সম্ভবত: ঐ নেতার ভাবসাব বুঝতে পারছিলেন?
তিনি আগ বাড়িয়ে আমাকে পরিচয় করিয়ে দেয়ার ছলে বললেন “….ও হচ্ছে এনাম-আমার ছোট ভাইয়ের মত !” নেতা তার ভেতরের ‘ফাফ’ আর যেন সইতে পারলেন না !! সাথে সাথে আশরাফ ভাইকে বলতে শুরু করলেন-
“লীডার উনি সাংবাদিক কিন্তু সব সময় আওয়ামীলীগের বিরুদ্ধে কথা বলেন! গত রাতেও চ্যানেল-এস এ দলের বিরুদ্ধে কথা বলেছেন!!
আশরাফ ভাই মুচকি হেসে বললেন-“গত রাতে আমি দেখেছি ওর প্রোগ্রাম- সেতো বিরোধিতা করেনি, সমালোচনা করেছেl সমালোচনা করা প্রতিটি বিবেকবান মানুষের অধিকার! তোমরা সমালোচনা সহ্য করতে পারোনা আবার রাজনীতি করো!”
আশরাফ ভাই দেখা হলে কুশল বিনিময়ের পর জিজ্ঞাসা করতেন “আমার বেলাল ভাই কেমন আছেন?”

সাংবাদিক (মরহুম) শাহাব উদ্দিন আহমেদ বেলাল ভাই আশরাফ ভাইয়ের খুব ঘনিষ্ট ছিলেনl বেলাল ভাই দীর্ঘ দিন অসুস্থ এবং আশরাফ ভাই আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং মন্ত্রী হওয়ার কারণে ব্যস্ততা বেড়ে যাওয়ায় লন্ডনে আসলে তাদের মধ্যে আগের মত আর দেখা-সাক্ষাৎ হতোনা তাই আশরাফ ভাই বেলাল ভাইয়ের খুঁজে নিতে আমাকে জিজ্ঞেস করতেন “বেলাল ভাই কেমন আছেন-আমার সালাম দিও?” আর বেলাল ভাইও দেখা হলে আমাকে জিজ্ঞেস করতেন “ও-এনাম আশরাফ’র খবর কিতা-দেখা অইসেনি-আমার সালাম দিও”? বেলাল ভাইকে আশরাফ ভাই খুব ভালোবাসতেন!

শিলা ভাবিরা নয়জন ভাই-বোন সবার সাথেই সম্পর্কটা ছিল আপনজনের মতl টাওয়ার হেমলেটস-এর একটি স্কুলের টিচার আমার বড় ভাইয়ের (ফুফাতো ভাই) স্ত্রী শাকিলা ভাবি (মিসেস সাকিলা মনির) ছিলেন শিলা ভাবীর সহকর্মীl সে হিসেবে শিলা ভাবী “দেবরজী” বলে মাঝে মাঝে মজা করতেনl
আজ আশরাফ ভাই সব সমালোচনার ঊর্ধেl চলে গেছেন তার প্রিয় শিলার কাছে! এক বছর আগে যে শিলা তার প্রিয় আশরাফকে ছেড়ে গেছেন পরপারে! ভালো থাকুন প্রিয় আশরাফ ভাই শেষ ঠিকানায়…..।
লন্ডন
৪ জানুয়ারী ২০১৯

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Close