লিভারপুলকে আরো একবার বাঁচালেন সালাহ

নানান নাটকীয়তা, উত্তেজনা ও উচ্ছ্বাসের মধ্য দিয়ে গত রাতটি কাটিয়েছে চ্যাম্পিয়ন্স লীগ ফুটবল টুর্নামেন্টের গ্রুপ পর্বে অংশগ্রহণকারী ক্লাবগুলো। নকআউট পর্বের দ্বারপ্রান্তে এসে শেষ ভাগের ম্যাচগুলোতে ছিল নানান সমীকরণ ও জয় পরাজয়ের বিষয়গুলো। এমন এক সমীকরণের বেড়াজাল ভেঙে মঙ্গলবার লিভারপুলকে শেষ ষোলতে পৌঁছে দিয়েছেন ক্লাবটির মিসরীয় তারকা মোহাম্মদ সালাহ।

আরেক ম্যাচে টোটেনহ্যাম হটস্পার্সদের ছিটকে পড়া থেকে রক্ষা করেছেন লুকাস মউরা। বার্সেলোনার সাথে ড্র করে নকআউট পর্বের সম্ভাবনা জাগিয়ে রাখা দলটি শেষ পর্যন্ত নকআউট পর্বের টিকিট পায় গ্রুপের আরেক দল ইন্টার মিলান খর্ব শক্তির পিএসভি আইন্দোভেনের সাথে ১-১ গোলে ড্র করার কারণে।

লিভারপুলের অ্যানফিল্ডে অনুষ্ঠিত নেপোলির বিপক্ষে ম্যাচে মোহাম্মদ সালাহ প্রথমার্ধে গোল করে এগিয়ে দেন স্বাগতিকদের। আর শেষ মুহূর্তে গোল খাওয়া থেকে তাদের রক্ষা করেন গোল রক্ষক আলিসন। এই দুইয়ের সম্মিলনে ১-০ গোলে নেপোলির বিপক্ষে জয় নিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের নক আউট পর্ব নিশ্চিত করে লিভারপুল।

গত আসরের রানার্স আপরা জানত ১-০ গোলে জয়লাভ করতে পারলেই সি’ গ্রুপ থেকে শেষ ষোলতে জায়গা করে নিতে পারবে লিভারপুল। ৩৪তম মিনিটে সালাহর অসাধারণ গোলটি সেই লক্ষ্যে পৌঁছে দেয় লিভারপুলকে। ওই জয়ের ফলে নেপোলিকে হটিয়ে নকআউট পর্ব নিশ্চিত করে জার্গেন ক্লপের শিষ্যরা।

খেলা শেষে ক্লপ বিটি স্পোর্টসকে বলেন, ‘কী অসাধারণ একটি ম্যাচ! আমি জানি না, একজন কোচ নিজের দলকে নিয়ে এতটা গর্ববোধ করতে পারে কিনা।’

নেপোলির হয়ে বদলি হিসেবে নামা আরকাদিউজের পেনাল্টি বক্স থেকে নেয়া গোলের শটটি লাইন থেকে বেরিয়ে এসে পা দিয়ে প্রতিহত করা গোল রক্ষক আলিসনের প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘আলিসন কীভাবে এমন একটি শট প্রতিহত করল তা সম্পর্কে আমার কোনো ধারণাই নেই। অকল্পনীয়, অবিশ্বাস্য।’

এদিকে ক্যাম্প ন্যুতে শেষ মুহূর্তে মউরার গোলে সমতা ফিরে পায় টোটেনহ্যাম হটস্পার্স। ম্যাচের সপ্তম মিনিটে ওসমানে ডেম্বেলে একক প্রচেষ্টায় অসাধারণ এক গোল করে এগিয়ে দেন স্বাগতিক বার্সেলোনাকে। বি’ গ্রুপ থেকে আগেই শেষ ষোলতে জায়গা করে নেয়া কাতালানদের সাথে ১-১ গোলে ড্র করার সুবাদে রানার আপ হিসেবে নকআউট পর্ব নিশ্চিত করে মরিসিও পচেত্তিনহোর শিষ্যরা।

খেলা শেষে স্পার্স কোচ বিটি স্পোর্টসকে বলেন, ‘এ ম্যাচে জয় পাওয়ার বিষয়ে আমি সব সময়ই আত্মবিশ্বাসী ছিলাম। বার্সেলোনার সাথে পরের রাউন্ডে যাওয়ার দাবীদার আমরাই ছিলাম। কঠিন এই গ্রুপে আমরাই সেরা দুটি দল।’

এদিকে নেইমার, কিলিয়ান এমবাপ্পে ও এডিনসন কাভানির গোলে ভর করে রেড স্টার বেলগ্রেডকে ৪-১ গোলের বড় ব্যবধানে হারিয়ে গ্রুপ সেরা হিসেবেই শেষ ষোলতে নাম লিখিয়েছেন প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি)।

বেলগ্রেডে খেলতে আসা পিএসজি জানতো একটি জয় তাদেরকে পৌঁছে দিবে নকআউট পর্বে। সে লক্ষ্যে মাঠে নেমে শুরুতেই গোল করে প্যারিস জায়ান্টদের এগিয়ে দেন এডিনসন কাভানি। ম্যাচের নবম মিনিটে কিলিয়ান এমবাপ্পের বানিয়ে দেয়া পাস থেকে লক্ষ্য ভেদ করেন এই উরুগুইয়ান আন্তর্জাতিক তারকা (১-০)। বিরতিতে যাওয়ার পাঁচ মিনিট আগে নেইমারের গোলে দ্বিগুন ব্যবধানে পৌঁছে যায় পিএসজি (২-০)। তবে বিরতির পর ম্যাচের ৫৬তম মিনিটে মার্কো গোবেলজিচের গোলে ব্যবধান কমায় স্বাগতিক রেড স্টার (২-১)।

ম্যাচের ৭৪তম মিনিটে অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার ফ্রি কিকের বল দর্শনীয় হেডে জালে জড়িয়ে ফের পিএসজিকে এগিয়ে দেন মারকুইনহোস (৩-১)। যোগ করা সময়ে এমবাপ্পে গোল করে ৪-১ ব্যবধানে জয় নিশ্চিত করে পিএসজির।

খেলা শেষে কোচ থমাস টাসেল আরএমসি স্পোর্টসকে বলেন, ‘আমাদের কিছু ভুল ত্রুটি ছিল। কিন্তু বেলগ্রেডের পক্ষ থেকে গোল পরিশোধের পর দল যে প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে তাতে আমি সত্যিই খুশি। পুরো ম্যাচটি আমাদের নিয়ন্ত্রণে ছিল’।

মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড ২-০ গোলে মোনাকোকে হারিয়ে গ্রুপ সেরার আসন লাভ করে। অপরদিকে ক্লাব ব্রাগার সাথে গোল শূন্য ড্র করেছে অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ। ‘ডি’ গ্রুপের ম্যাচে পোর্তোর কাছে ৩-২ গোলে হেরে যাওয়ার পরও ইউরোপা লীগের শেষ ৩২-এ জায়গা খুঁজে পেয়েছে গালাতাসারে। বিজয়ী দলের তিন গোলের দুটিই এসেছে পেনাল্টি থেকে। গ্রুপের আরেক ম্যাচে লোকোমোটিভ মস্কোকে ১-০ গোলে হারিয়েছে সালকে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Close