ইউকেএক্সক্লুসিভসর্বাধিক আলোচিতসর্বাধিক পঠিত

পদত্যাগ করেছেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন

Borisব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন পদত্যাগ করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন ১০ নং ডাউনিং স্ট্রিটের একজন মুখপাত্র তার পদত্যাগের খবর নিশ্চিত করেছেন। বলা হচ্ছে, ব্রেক্সিট নিয়ে প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে’র সঙ্গে মনোমালিন্যের জের ধরে বরিস জনসন এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এ নিয়ে মাত্র ২৪ ঘন্টায় বৃটিশ প্রশাসনের ৩ জন প্রভাবশালী কর্মকর্তা পদত্যাগ করলেন।
খবরে বলা হয়, পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসনের পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে। প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনের মুখপাত্র বলেন, সোমবার বিকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসনের পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে।
দ্রুতই তার বদলির নাম ঘোষণা করা হবে। বরিস জনসনকে তার কাজের জন্য ধন্যবাদ জানান মে।
প্রসঙ্গত, বৃটেনের সরকারের মধ্যে অস্থিরতা শুরু হয় গত শুক্রবার। ওইদিন অনুষ্ঠিত মন্ত্রীসভার বৈঠকে ব্রেক্সিট নিয়ে একটি সমঝোতায় পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী মে। তখন ব্রেক্সিটের একটি সুনির্দিষ্ট রূপরেখা অনুমোদন করে মন্ত্রীসভা। কিন্তু দু’দিন পরে মে’র ওই পরিকল্পনা নিয়ে অসন্তোষ দেখা দেয়। এর প্রেক্ষিতে সোমবার সকালে পদত্যাগের ঘোষণা দেন ব্রেক্সিট মন্ত্রী ডেভিড ডেভিস। তাকে অনুসরণ করেন ব্রেক্সিট বিষয়ক আরেকজন মন্ত্রী স্টিভ বেকার। বিকালে ওই তালিকায় বরিস জনসনের নাম যুক্ত হয়।
শুভাকাঙ্খীদের সঙ্গে আলোচনা করে প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়ে দেন, ব্রেক্সিট পরিকল্পনা বাস্তবায়নে মে’কে সহায়তা করতে পারবেন না তিনি। এ নিয়ে মে’র পরিকল্পনার বিরোধীতা করে মাত্র ২৪ ঘন্টায় মন্ত্রীসভার প্রভাবশালী ৩ মন্ত্রী পদত্যাগ করলেন।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Close