ব্রাজিলকে বিদায় করে সেমিফাইনালে বেলজিয়াম

belgiamরাশিয়ার কাজানে একদিকে বেলজিয়াম সমর্থকদের উল্লাস অন্যদিকে ব্রাজিল সমর্থকদের হুহু কান্নায় মুখোরিত হলো। রাশিয়া বিশ্বকাপের অন্যতম দাবিদার ব্রাজিলকে বিদায় করে নিজেদের ফুটবল ইতিহাসে দ্বিতীয় বারের মতো সেমিফাইনালে চলে গেছে বেলজিয়াম। আর ২০০২ সাল বাদ দিয়ে। শেষ সাত বিশ্বকাপে ইউরোপের দলের কাছে হেরে নক আউট পর্ব থেকে বিদায় নিতে হয়েছে ব্রাজিলর। এছাড়া বেলজিয়ামের সোনালি প্রজন্ম ২০০২ বিশ্বকাপে শেষ ষোলো থেকে তাদের বিদায় করে দেওয়ার এক প্রতিশোধও নিয়ে নিল।
ব্রাজিলের জালে প্রথমার্ধের মধ্যেই দুই গোল দিয়ে এগিয়ে যায় বেলজিয়াম। ম্যাচের ১৩ মিনিটের মাথায় প্রথম একাদশে প্রথম বারের মতো সুযোগ পাওয়া ফার্নান্দিনহোর আত্মঘাতি গোলে পিছিয়ে পড়ে ব্রাজিল। এরপর ৩১ মিনিটে ২-০ গোলের লিড নিয়ে প্রথমার্ধ শেষ করে বেলজিয়াম। এবারের ব্যবধান বাড়ান ডি ব্রুইনি। ম্যাচের ৭৬ মিনিটে গোল করে ম্যাচে ফেরার ইঙ্গিত দেয় ব্রাজিল। ব্যবধান কমিয়ে ২-১ করে সেলেকাওরা। কিন্তু বেলজিয়াম গোলরক্ষকের থিবোর্ত কোর্তোয়ার দুর্দান্ত সেভ এবং কৌতিনহো-আগুস্তোর গোল মিসের কারণে হেরে বিদায় নিতে হলো ব্রাজিলের।
ম্যাচের শুরু থেকে কাউন্টার অ্যাটাকে ব্রাজিলকে কোণঠাসা করে ফেলে বেলজিয়াম। নিজেদের রক্ষণ মজবুত রেখে বার বার ব্রাজিলে বক্সে ঢুকে পড়ে রেড ডেভিলসরা। দারুন দুই সেভ করেছেন ব্রাজিল গোলরক্ষক অ্যালিসন। এছাড়া তাদের কিছু দ্রুত গতির আক্রমণ ঠেকিয়ে দেয় ব্রাজিল।
ম্যাচের শুরুতে ৪ মিনিটে বেলজিয়াম বারে লেগে বল ফিরে আসে। এরপর ১৩ মিনিটে গোল খাই ব্রাজিল। ৩১ মিনিটে গতি দিয়ে ব্রাজিল রক্ষণকে পেছনে ফেলেন লুকাকু। এরপর ব্রুইনিকে বাড়ানো বল ধরে দারুণ গোল করেন ম্যানসিটি তারকা। ৪০ মিনিটে দারুণ এক ফ্রি কিক নেন ব্রুইনি। ব্রাজিল গোলরক্ষক তা ফিরিয়ে দেন। এরপর কর্ণার কিক থেকে পাওয়া বলে পা ছুইয়ে দেন কোম্পানি। সেটাও ঠেকান অ্যালিসন।
বেলজিয়াম গোলরক্ষক থিবোর্ট কোর্তোয়া অবশ্য ভালো দুটি আক্রমণ ঠেকান। ৩৭ মিনিটে মার্সেলোর ভালো শট ঠেকান বেলজিয়াম গোলরক্ষক। ৩৯ মিনিটে আরও একটি আক্রমণ ঠেকান বেলজিয়াম গোলরক্ষক।
শুক্রবারের প্রথম ম্যাচে উরুগুয়েকে হারিয়ে এরই মধ্যে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে ফ্রান্স। বেলজিয়াম-ব্রাজিলের মধ্যে যারা জয় পাবে তারা ফ্রান্সের মুখোমুখি হবে। ব্রাজিল ঘরের মাঠে ২০১৪ বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে জার্মানির কাছে হেরে বিদায় নেয়। এবার আবার সেমিতে যাওয়ার লড়াইয়ে মাঠে নেমেছে তারা। আর বেলজিয়াম নিজেদের ফুটবল ইতিহাসে দ্বিতীয় বারের মতো সেমিতে যাওয়ার লড়াইয়ে মাঠে নেমেছে।
ব্রাজিল একাদশ: অ্যালিসন, ফ্যাগনার, থিয়াগো সিলভা, মিরান্ডা (অধিনায়ক), মার্সেলো, পাওলিনহো, ফার্নান্দিনহো, উইলিয়ান, কুতিনহো, নেইমার, গ্যাব্রিয়েল জেসুস।
বেলজিয়াম একাদশ: কোর্টইস, আল্ডেরওইরেল্ড, কোম্পানি, ভার্টনঘেন, মিউনিয়ার, ফেলাইনি, উইটসেল, চাদলি, ডি ব্রুইন, লুকাকু, এডেন হ্যাজার্ড।
রেফারি: মিলোরাদ মাজিচ (সার্বিয়া)।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Close