ইন্দোনেশিয়ায় গরু-বিমান সংঘর্ষ

ইন্দোনেশিয়ার একটি যাত্রীবাহী বিমান গরুর সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে রানওয়ে থেকে ছিটকে পাশের মাঠে গিয়ে পড়ে। তবে এতে কোনো যাত্রী হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। বরং বিমানের চাকায় পিষ্ট হয়ে গুরুটি মারা যায়।
ইন্দোনেশিয়া সুলাওয়েসি দ্বীপের জালালুদ্দিন বিমানবন্দরে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় বিমানটিতে ১১০ জন যাত্রী ছিলো।
লায়ন এয়ারের বিমানটির পাইলট পুড়ে যাওয়া মাংসের গন্ধ পেয়েছেন বলে জানান ইন্দোনেশিয়ার সরকারি বার্তা সংস্থা আনতারাকে।
তিনি জানান, ল্যান্ড করার সময় প্রথমে তিনি ভেবেছিলেন, কয়েকটি কুকুর রয়েছে রানওয়েতে। কিন্তু কাছাকাছি আসার পর তিনি দেখতে পান, রানওয়ের ঠিক মাঝখানে তিনটি গরু উদ্দেশ্যহীনভাবে বিচরণ করছে। এগুলোর মধ্যে একটি গরু বিমানটির একটি চাকার সামনে পড়ে যায়।
ইন্দোনেশিয়ার যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেছেন, বিমানটির সব যাত্রীকে নিরাপদে বিমান থেকে বের করা হয়েছে। এ ঘটনার পরপর কয়েক ঘন্টার জন্য বিমানবন্দরটি বন্ধ রাখা হয়। ফলে ঈদের ছুটি কাটাতে ঘরমুখো যাত্রীরা বিপাকে পড়েন। অবশ্য এরইমধ্যে বিমানবন্দরটিতে বিমান ওঠা-নামা শুরু হয়েছে।
অন্তত ১৭,০০০ দ্বীপ নিয়ে গঠিত ইন্দোনেশিয়ার এক দ্বীপ থেকে আরেক দ্বীপে যাওয়ার জন্য বিমান একটি সহজ ও দ্রুতগামী বাহন। প্রচুর মানুষ ভ্রমণের জন্য বিমান ব্যবহার করলেও দেশটির আকাশপথের নিরাপত্তার অতীত ইতিহাস ভালো নয়।
গত বছরের এপ্রিলে লায়ন এয়ারের একটি বিমান বালি দ্বীপের ডেনপাসার বিমানবন্দরের রানওয়ে থেকে ছিটকে সাগরে পড়লে ২২ যাত্রী আহত হয়েছিল।
লায়ন এয়ার ইন্দোনেশিয়ার অন্যতম বৃহত্তম বেসরকারি বিমান পরিবহন সংস্থা। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এটির বিমান সংখ্যা ও পরিবহন সেবা ব্যাপকভাবে বেড়েছে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close