অবশেষে গ্রেফতার করা হয়েছে অভিযুক্ত পুলিশকর্মীকে

‘পুলিশের হাতে নির্মম হত্যাকান্ড ২০২০ সালের আমেরিকায় স্বাভাবিক বিষয় হতে পারে না’

অবশেষে গ্রেফতার করা হয়েছে মিনিয়াপোলিস কান্ডের মূল হোতা অভিযুক্ত পুলিশকর্মীকে। কয়েক দিন আগে জর্জ ফ্লয়েড নামে এক কৃষ্ণাঙ্গর গলায় হাঁটু চেপে শ্বাসরোধে হত্যা করার অভিযোগ ওঠে তার বিরুদ্ধে। সেই ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায়। অবশেষে খুনের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয় পুলিশকর্মী ডেরেক চাওভিনকে। গত সোমবার ফ্লয়েডকে হত্যার পর চার অভিযুক্ত পুলিশকর্মীকে সাসপেন্ড করা হয়। ফ্লয়েডকে হত্যার যে ভিডিও সামনে এসেছে তাতে দেখা যায়, কৃষ্ণাঙ্গ বারবার মার্কিন পুলিশ অফিসারকে বলছেম আমার দম বন্ধ হয়ে আসছে, কিন্তু পুলিশকর্তা তাতে কর্ণপাত করেননি। শেষমেষ প্রাণ হারান ফ্লয়েড। এরপর থেকেই মিনিয়াপোলিস জুড়ে শুরু হয় প্রতিবাদ। এদিকে মার্কিন শ্বেতাঙ্গ পুলিশের হাতে কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েড নির্মমভাবে খুন হওয়ার ঘটনায় সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা শুক্রবার এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘পুলিশের হাতে জর্জ ফ্লয়েডের নির্মম হত্যাকান্ড ২০২০ সালের আমেরিকায় ‘স্বাভাবিক’ বিষয় হতে পারে না। আমি ভিডিও দেখেছি। ওই দৃশ্য আমার হৃদয় ভেঙে দিয়েছে। আমাদের মনে রাখতে হবে, এখনো লাখ লাখ মানুষকে বর্ণের কারণে নিগৃহীত হতে হয়। আমেরিকাকে অবশ্যই ভালো হতে হবে’।
এ নিয়ে গোটা আমেরিকায় যখন ব্যাপক বিক্ষোভ চলছে তখন ওবামা বলেছেন, করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে মহামারির মধ্যে মানুষজন স্বাভাবিক পরিস্থিতির জন্য উদগ্রীব হয়ে আছে। বিভিন্নভাবে মর্মান্তিক, কষ্টকর এবং মানসিক যন্ত্রণা পোহানোর জেরে মার্কিনিরা উৎসুক হয়ে আছে স্বাভাবিক জীবনে ফেরার। তখন এই মর্মান্তিক হত্যাকান্ড ঘটল। এদিকে, কৃষ্ণাঙ্গ নাগরিক নিহত হওয়ার ঘটনায় বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে পড়েছে মিনেপোলিস শহর। পরিস্থিতি সামাল দিতে মেয়র জ্যাকব ফ্রেই শহরে কারফিউ জারি করেছেন। অন্য শহরেও বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে।
আফ্রিকান-আমেরিকানদের ওপর পুলিশি বর্বরতার বিরুদ্ধে অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠেছে যুক্তরাষ্ট্র। শত শত দোকান ও পুলিশ স্টেশন ভাংচুরের পর মিনিয়াপোলিস ও সেন্ট পলে রাস্তায় সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। নিউইয়র্ক থেকে ফিনিক্স পর্যন্ত দেশটির বিভিন্ন শহরে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। এতে স্থানীয় কর্মকর্তাদের সমালোচনা করেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বিক্ষোভকারীদের ‘খুনি গুন্ডা’ আখ্যায়িত করে কঠোরভাবে দমনের হুমকি দিয়েছেন তিনি।
ওদিকে যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মিনিয়াপলিসে জর্জ ফ্লয়েড নামের কৃষ্ণাঙ্গ এক ব্যক্তিকে হত্যার দায়ে অভিযুক্ত পুলিশের সাবেক কর্মকর্তা দারেক চাউভিনের সঙ্গে ১০ বছরের বিবাহিত জীবনের ইতি টানার কথা জানিয়েছেন তার স্ত্রী ক্যালি চাউভিন। একটি বিবৃতিতে ক্যালি চাউভিনের আইনজীবী জানান, কৃষ্ণাঙ্গ হত্যায় অভিযুক্ত হওয়ার কারণে দারেক চাউভিনের স্ত্রী তাকে ডিভোর্স দিচ্ছেন। এছাড়া ক্যালি চাউভিনের নিহত জর্জ ফ্লয়েডের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন বলেও জানান তার আইনজীবী।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close