সদস্য দেশগুলোকে ৭৫০ বিলিয়ন ইউরো দেবে ইইউ

বড় অংশই যাবে করোনা মহামারীতে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দুই দেশ স্পেন ও ইতালিতে

করোনা ভাইরাসের ধস থেকে সদস্য দেশগুলোকে টেনে তুলতে ৭৫০ বিলিয়ন ইউরোর পুনরুদ্ধার পরিকল্পনা প্রকাশ করেছে ইউরোপীয়ান কমিশন। এই পরিকল্পনার খবর প্রকাশের পর পরই ডলারের বিপরীতে শক্তিশালী হয়ে ওঠে ইউরোর মূল্যমান। নতুন পুনরুদ্ধার পরিকল্পনা অনুযায়ী, ইউরোপীয় ইউনিয়ন বাজার থেকে ৭৫০ বিলিয়ন ইউরো ধার করবে এবং তা সদস্য দেশগুলোর মধ্যে বিলিয়ে দেবে। এই অর্থের বড় অংশই যাবে করোনা মহামারীতে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দুই দেশ স্পেন ও ইতালিতে। দেশ দুটিকে সাহায্য ও ঋণ হিসেবে মোট ৩১৩ বিলিয়ন ইউরো দেয়া হবে।
পুনরুদ্ধার পরিকল্পনার ৭৫০ বিলিয়ন ইউরোর দুই-তৃতীয়াংশই সদস্যগুলোকে সাহায্য হিসেবে দেয়া হবে, বাকিটা দেয়া হবে ঋণ হিসেবে। সাহায্য হিসেবে এত বিপুল অর্থ দেয়ার বিষয়টি বিতর্কিত হলেও এ মুহূর্তে এটি খুবই দরকার বলেই মনে করছেন অংশীজনরা। কারণ এরই মধ্যে ইতালি, স্পেন, ফ্রান্স, গ্রীস ও পর্তুগাল বড় অংকের ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। দেশগুলোর অর্থনীতি মূলত পর্যটন নির্ভর, যা করোনার কারণে একেবারে ধসে পড়েছে।
বড় এই পুনরুদ্ধার পরিকল্পনার পেছনে ইইউর উদ্দেশ্য ৪৫০ মিলিয়ন মানুষের এই বাজারের অখণ্ডতা বজায় রাখা। আশংকা করা হচ্ছে, ২৭ দেশের ইইউতে এই বছরেই বড় অর্থনৈতিক মন্দা আসছে। এই পরিস্থিতিতে বিপথগামী অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ও সম্পদের স্তর যে কোন দেশকে ইইউ থেকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলতে পারে। মূলত এটা ঠেকাতেই ইইউর এই পরিকল্পনা। নতুন পুনরুদ্ধার পরিকল্পনা ইইউ’র দীর্ঘমেয়াদি বাজেটে অন্তর্ভুক্ত হবে না। আগামী ২০২১-২৭ বছরের জন্য ১ দশমিক ১০ ট্রিলিয়ন ইউরোর বাজেট প্রস্তাব করতে যাচ্ছে ইউরোপীয়ান কমিশন।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close