করোনাভাইরাস

৫ লাখ পাউন্ড অনুদান ইংল্যান্ডের ক্রিকেটারদের

ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকা পুরুষ ক্রিকেটাররা বোর্ডের তহবিলে প্রাথমিকভাবে ৫ লাখ পাউন্ড দান করেছে। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা ৫ কোটি ২০ লাখ টাকার বেশি। শুধুমাত্র করোনাভাইরাস নয়, বরং যেকোনো ভাল কাজে ব্যবহারের জন্য এই অর্থ দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির খেলোয়াড়রা।

শুধু পুরুষ ক্রিকেটাররা নয়, নারী দলের ক্রিকেটাররাও করেছেন নিজেদের ভাগের কাজ। করোনাভাইরাস মোকাবিলায় নারী ও পুরুষ উভয় দলের ক্রিকেটাররা বড় অঙ্কের অনুদান দিয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।
তবে অনুদানের বিষয়ে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড চাইছিল তারকা খেলোয়াড়দের বেতনের কিছু অংশ কেটে রাখতে। বেতন কাটার বিষয়ে এক বিব্রতকর অবস্থারই সৃষ্টি হয়েছিল ইংল্যান্ডের ক্রিকেট খেলোয়াড়দের মধ্যে। এতে রাজি হয়নি ক্রিকেটাররা।
তবে ইংল্যান্ডের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক এউইন মরগান জানিয়েছিলেন, করোনা মোকাবিলায় ‘যেকোনো কিছু করতে রাজি’ তারা। সেই কথা মোতাবেক বড় অঙ্কের অনুদান নিয়েই এগিয়ে এলেন মরগান-স্টোকসরা। এছাড়া নারী দলের ক্রিকেটাররাও করেছেন নিজেদের ভাগের কাজ।
নারী দলের ক্রিকেটাররা বেতন কাটার প্রস্তাবেই রাজি হয়েছে। এপ্রিল, মে ও জুন- এই তিন মাসে তাদের বেতনের একটা অংশ কেটে রাখবে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। এছাড়া সামনের দিনগুলোতে অন্য কোন সহযোগিতার প্রয়োজন হলে নারী ক্রিকেটাররা প্রস্তুত বলেই জানিয়েছেন অধিনায়ক হিদার নাইট।
এদিকে পুরুষ দলের ক্রিকেটাররা সরাসরি বেতন কাটার প্রস্তাবে রাজি না হলেও, তাদের দানের অঙ্কটা আসলে ঐ একই দাঁড়িয়েছে। খেলোয়াড়দের পক্ষ থেকে দেয়া বার্তায় উল্লেখ করা হয়েছে, অনুদানের অঙ্কটা কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকা খেলোয়াড়দের আগামী তিন মাসের বেতনের ২০ শতাংশ অর্থের সমপরিমাণ।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close