নিষিদ্ধ হলো ম্যানচেস্টার সিটি

আর্থিক অনিয়মের দায়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের আগামী দুই মৌসুম থেকে ম্যানচেস্টার সিটিকে নিষিদ্ধ করেছে ইউরোপিয়ান ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা উয়েফা। ইউরোপিয়ান ক্লাব প্রতিযোগিতা থেকে আগামী দুই মৌসুমের জন্য সিটিকে নিষিদ্ধ করেছে উয়েফা। অর্থাৎ চ্যাম্পিয়নস লিগের আগামী দুই মৌসুমে খেলতে পারবে না ইংলিশ ক্লাবটি। নিষিদ্ধ করার পাশাপাশি সিটিকে ৩ কোটি ইউরো (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ২৭৬ কোটি টাকা) জরিমানাও করেছে উয়েফা। ইউরোপের ক্লাব প্রতিযোগিতায় ২০২০-২১ ও ২০২১-২২ মৌসুমের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছে ম্যানচেস্টারের ক্লাবটি। তবে উয়েফার এ রায়ের বিপক্ষে আপিল করা যাবে। সিটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, উয়েফার এ রায়ে তারা ‘হতাশ হলেও বিস্মিত হয়নি।’ তবে ‘অপরিপক্ব’ এ রায়ের বিপক্ষে সিটি আপিল করবে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে নিষিদ্ধ হতে যাচ্ছে ম্যানচেস্টার সিটি-কথাটা নতুন কিছু না। ক্লাবের আর্থিক দিকগুলো সঠিকভাবে না সামলানোর দায়ে এ হুমকি বারবার শুনেছে তারা। গত মাসে সিটির পূর্বের আর্থিক অনিয়ম নিয়ে প্রতিবেদনও করেছিল ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান। এবার নিষিদ্ধ হওয়ার শঙ্কাটা সত্যি সত্যি-ই ফলে গেল! ক্লাব নিবন্ধন ও আর্থিক সংগতি নীতিতে সিটি ‘মারাত্মক আইন লঙ্ঘন করেছে’ বলে মনে করে উয়েফা। ২০১২ থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে সিটির স্পনসরশিপ রাজস্ব থেকে আয়কৃত আর্থিক হিসেবে গড়মিল পেয়েছে উয়েফার আর্থিক সংগতি নীতি নিয়ন্ত্রক সংস্থা। এ নিয়ে তদন্তকার্যেও ক্লাবটি ‘সহায়তা করেনি’ বলে জানিয়েছে তারা। এর আগে গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে জানা গিয়েছিল, সিটির আর্থিক হিসেবে বাংলাদেশি মূল্যমানে ১ হাজার ৩২১ কোটি টাকার এ গরমিল ধরে ফেলেছে উয়েফা।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close