হিজাব পরিহিতা মুসলিম কর্মচারীর পক্ষে দাঁড়ালো আইকিয়া

সুইডিশ ফার্ণিচার ও ডেকোরেশন কোম্পানী আইকিয়া’র একটি স্টোরে হিজাব পরিহিতা একজন ক্যাশিয়ারের প্রতি সুইজারল্যান্ডের জনৈক গ্রাহকের অবমাননাকর মন্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছে উক্ত কোম্পানী। স্টোরটি সুইজারল্যান্ডের আউবোনে অবস্থিত। উক্ত মুসলিম বিদ্বেষী গ্রাহক গুগল রিভিউয়ে এই মর্মে মন্তব্য করেন, ‘আমি ঐ স্টোরে আর কখনো পা রাখবো না। তিনি স্টোরে হিজাব পরিহিতা মহিলা ক্যাশিয়ারের উপস্থিতির নিন্দা করেন। কিন্তু এর দ্রুত জবাব দিয়েছে আইকিয়া।

গুগলে প্রদত্ত বক্তব্যে কোম্পানীটি বলেছে, আমাদের কোম্পানীর স্পষ্ট মূল্যবোধসমূহ রয়েছে, সেগুলো হচ্ছে- ‘প্রত্যেকের প্রতি শ্রদ্ধা, তার জন্মস্থান, লিঙ্গ কিংবা ধর্ম যা-ই হোক না কেনো। একজন মানুষকে তার পোশাকের ভিত্তিতে যাচাইয়ের আগে, তার সম্পর্কে জানা উচিত। আমরা কোনভাবে এজন্য শোক প্রকাশ করবোনা যে, আপনি আমাদের স্টোর সমূহে আপনার মতামত নিয়ে যদি আর কখনো পা না রাখেন’।
অনেক লোক গুগলে আইকিয়া’র এ ধরণের অবস্থান গ্রহণকে স্বাগত জানিয়েছেন। জনৈক মহিলা বলেন, ‘একজন হিজাব পরিহিতা ক্যাশিয়ারের সমালোচনাকারী এই মহিলার ব্যাপারে আপনাদের মন্তব্যের জন্য আমি ধন্যবাদ জানাতে চাই। আপনারা আমাদেরকে আপনাদের ধৈর্য ও মুক্ত দৃষ্টিভঙ্গী প্রদর্শন করেছেন। নিশ্চিতভাবে একজন মহিলা আপনাদের স্টোরে পা রাখবে না, তবে জেনে রাখুন, অন্যান্য শত লোক আপনাদের গ্রাহক হতে আনন্দিত বোধ করবে এবং সেক্ষেত্রে আমি প্রথম। আমাদের বিশ্বে সকল ব্রান্ড যদি আইকিয়া’র মতো হতো তবে আমাদের বিশ্ব কতো চমৎকারই না হতো। আপনাদের প্রতি শ্রদ্ধা এবং সাবাস, আইকিয়া’!
অপর একজন বলেন, ‘আমি আপনাদের সুবোধ জবাব, এর পাশাপাশি আপনাদের সহনশীলতার চেতনা ও মুক্ত ধ্যান ধারণার জন্য ‘ফাইভ স্টার’ (৫ টি তারকা) প্রদান করছি’।
আরেকজন ওয়েব ব্যবহারকারী বলেন, ‘আপনারা মুক্তবোধ ও ভাবমূর্তির ক্ষেত্রে আমার প্রতিনিধিত্ব করছেন, যা কোম্পানীগুলোর প্রদর্শন করা উচিত। অনেক দেশে সংস্কৃতি ও ধর্মসমূহের একটি মিশ্রন রয়েছে, যা দৃশ্যমান এবং এগুলো রীতিনীতির দিক দিয়ে এমন যে এ বিষয়ে আর কোন প্রশ্ন ওঠতে পারে না। সুইজারল্যান্ডে এটা শুরু হতে দেখে আমি আনন্দিত।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close