প্রথমবারের মতো ৮০ দলের র‍্যাংকিং প্রকাশ করলো আইসিসি

ক্রিকেট খেলুড়ে সব দেশকেই টি-টোয়েন্টি স্ট্যাটাস দেয়ার পর, খেলাটির বিশ্বায়নের লক্ষ্যে প্রথমবারের ৮০ দলের র‍্যাংকিং প্রকাশ করেছে আইসিসি। যাতে করে খেলুড়ে দেশগুলো আইসিসির মানদণ্ডে নিজেদের উন্নতি-অবনতির খোঁজ রাখতে পারে। নতুন এই র‍্যাংকিংয়ের ফলে প্রথমবারের মতো আইসিসির আনুষ্ঠানিক র‍্যাংকিংয়ে উঠে এসেছ অস্ট্রিয়া, বৎসোয়ানা, লুক্সেমবার্গ, মোজাম্বিকের মতো দেশগুলোর নাম। এ র‍্যাংকিংয়ে নাম তোলার প্রধান শর্ত রাখা হয়েছিল মে ২০১৬ সালের পর থেকে অন্তত ৬টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলা।

আইসিসির প্রকাশিত এ র‍্যাংকিংয়ে নতুনদের যেমন ঠাই মিলেছে, তেমনি পুরনোরা বজায় রেখেছেন নিজেদের অবস্থান। যেখানে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে পাকিস্তান। পরিবর্তন আসেনি শীর্ষ পাঁচের মধ্যে। তবে নিজেদের মধ্যে জায়গা পরিবর্তন করেছে দুইয়ে থাকা ভারত এবং পাঁচে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকা। এছাড়া একধাপ করে এগিয়েছে শ্রীলঙ্কা এবং আফগানিস্তান। নিজেদের ইতিহাসের সেরা সপ্তম অবস্থানে উঠে এসেছে আফগানরা। নয়ে নেমে গেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বাংলাদেশ রয়ে গেছে দশেই। তবে ২২০ রেটিং থাকা বাংলাদেশের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলছে ২১২ রেটিং নিয়ে ১১তে থাকা নেপাল। এক নজরে দেখে নিন ৮০ দলের টি-টোয়েন্টি র‍্যাংকিং:

১. পাকিস্তান- ২৮৬
২. দক্ষিণ আফ্রিকা- ২৬২
৩. ইংল্যান্ড- ২৬১
৪. অস্ট্রেলিয়া- ২৬১
৫. ভারত- ২৬০
৬. নিউজিল্যান্ড- ২৫৪
৭. আফগানিস্তান- ২৪১
৮. শ্রীলঙ্কা- ২২৭
৯. ওয়েস্ট ইন্ডিজ- ২২৬
১০. বাংলাদেশ- ২২০
১১. নেপাল- ২১২
১২. স্কটল্যান্ড- ১৯৯
১৩. জিম্বাবুয়ে- ১৯২
১৪. নেদারল্যান্ডস- ১৮৭
১৫. আয়ারল্যান্ড- ১২
১৬. আরব আমিরাত- ১৮১
১৭. পাপুয়া নিউগিনি- ১৭২
১৮. ওমান- ১৫৫
১৯. হংকং- ১৫২
২০. নামিবিয়া- ১৪১
২১. কাতার- ১২৯
২২. সৌদি আরব- ১২১
২৩. সিংগাপুর- ১১৮
২৪. ডেনমার্ক- ১১৬
২৫. কানাডা- ১১১
২৬. জার্সি- ১০৬
২৭. কুয়েত- ১০৪
২৮. ঘানা- ১০০
২৯. কেনিয়া- ৯৫
৩০. বৎসোয়ানা- ৯৩
৩১. যুক্তরাষ্ট্র- ৮৪
৩২. অস্ট্রিয়া- ৭৩
৩৩. মালয়েশিয়া- ৭৩
৩৪. গার্নসি- ৬৮
৩৫. উগান্ডা- ৬৮
৩৬. জার্মানি- ৬৪
৩৭. সুইডেন- ৫৮
৩৮. তানজানিয়া- ৫৬
৩৯. নাইজেরিয়া- ৫৫
৪০. লুক্সেমবার্গ- ৫৫
৪১. স্পেইন- ৫৩
৪২. ফিলিপাইন- ৪৮
৪৩. ফ্রান্স- ৪৫
৪৪. বেলিজ- ৪২
৪৫. বেলজিয়াম- ৪০
৪৬. পেরু- ৪০
৪৭. বাহরাইন- ৩৭
৪৮. মেক্সিকো- ৩৬
৪৯. ফিজি- ৩৫
৫০. সামোয়া- ৩৪
৫১. ভানুয়াটু- ৩৩
৫২. পানামা- ৩২
৫৩. জাপান- ৩২
৫৪. কোস্টা রিকা- ৩২
৫৫. থাইল্যান্ড- ৩১
৫৬. আর্জেন্টিনা- ৩১
৫৭. হাঙ্গেরি- ৩০
৫৮. মোজাম্বিক- ২৯
৫৯. চিলি- ২৫
৬০. মালাবি- ২৫
৬১. ইসরায়েল- ২৫
৬২. ভুটান- ২৩
৬৩. ফিনল্যান্ড- ২২
৬৪. দক্ষিণ কোরিয়া- ২২
৬৫. আইসল অব ম্যান- ২১
৬৬. মাল্টা- ১৪
৬৭. বুলগেরিয়া- ১৪
৬৮. সিয়েরা লিওন- ১২
৬৯. ব্রাজিল- ১২
৭০. চেক রিপাবলিক- ৯
৭১. সেইন্ট হেলেনা- ৯
৭২. মালদ্বীপ- ৮
৭৩. জিব্রাল্টার- ৪
৭৪. মায়ানমার- ৩
৭৫. ইন্দোনেশিয়া- ০
৭৬. চায়না- ০
৭৭. গাম্বিয়া- ০
৭৮. সোয়াজিল্যান্ড- ০
৭৯. রুয়ান্ডা- ০
৮০. লেসোথো- ০

এছাড়াও আইসিসি সদস্যপদ পাওয়ার পর কায়ম্যান আইসল্যান্ড, সাইপ্রাস, এস্তোনিয়া, গ্রিস, ইতালি, নরওয়ে, পর্তুগাল, রোমানিয়া, রাশিয়া, তুর্কি, ক্যামেরুন এবং বারমুডাও টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছে। কিন্তু পয়েন্ট টেবিলে নাম লেখানোর মতো যথেষ্ট ম্যাচ খেলা হয়নি তাদের।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Close