বিশ্ব অর্থনীতির ৮ লাখ কোটি ডলার সাইবার ঝুঁকিতে

সাইবার অপরাধ এত দ্রুত বাড়ছে যে আগামী ৫ বছরে তা বিশ্ব অর্থনীতিতে ৮ লাখ কোটি ডলারের ধস নামাতে পারে। এমন আশঙ্কা করে আমিরাতের তথ্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ ও নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান ডার্ক ম্যাটার গ্রুপের সিইও ড. করিম শাবাগ বলেছেন, সাইবার অপরাধে অপ্রতিরোধ্য ক্ষতি কার্যকরভাবে মোকাবেলা করতে না পারায় এক্ষেত্রে ব্যাপক হুমকি সৃষ্টি হয়েছে। দুবাই এক্সপো ২০২০’এর তথ্যপ্রযুক্তি অবকাঠামো রক্ষার দায়িত্ব পেয়েছে ডার্ক ম্যাটার।
আবুধাবিতে বৃহস্পতিবার আঞ্চলিক ‘ইন্টারনাল অডিট সম্মেলনে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী ড. করিম বলেন, ইন্টারনেটের মাধ্যমে হাইপার সংযোগে তথ্য ও সেবা হ্যাক করার পরিমাণ এত দ্রুত বাড়ছে যে ঝুঁকির প্রবণতা প্রবল থেকে প্রবলতর হয়ে উঠছে। খবর আরব বিজনেস।
আমিরাতের ১ লাখ ৩৬ হাজার ওয়েবসাইট পরখ করে দেখা গেছে ৯৩ শতাংশ পুরোনো সংস্করণের সফ্টওয়্যার ব্যবহার হচ্ছে যা সাইবার অপরাধের জন্যে এক বিশাল সুযোগ সৃষ্টি করে। এ তথ্য দিয়ে ড. করিম বলেন, নিরাপত্তা ও সমর্থন নিশ্চিত করে না এমন সফটওয়্যার ব্যবহার হচ্ছে ৮৩ শতাংশ এবং ৭৭ শতাংশ সফটওয়্যারের গ্রহণযোগ্যতা খুবই দুর্বল ধরনের। ৪০ শতাংশ সেকেরে সফটওয়্যার থেকে হ্যাকাররা অনবরত তথ্য চুরি করছে।
আমিরাতের ইন্টারনাল অডিটরস এসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান আব্দুলকাদের ওবায়েদ আলী বলেন, সাইবার নিরাপত্তা সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের জন্যে সর্বোচ্চ পরিমানে গুরুত্ব দেওয়া উচিত এবং তথ্য এখন উভয় ধরনের প্রতিষ্ঠানের জন্যে সম্পদ হয়ে দাঁড়িয়েছে যা রক্ষা করাও জরুরি। দিনে ২শ’ কোটি সাইবার হামলা ঘটে এমন দাবি করে এই বিশেষজ্ঞ বলেন, প্রযুক্তির গতি ও বৈচিত্র নিরন্তর এত দ্রুত পরিবর্তিত হচ্ছে যে প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিরাপদে রাখাই প্রধান বিবেচ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে। কারণ গত দুই বছরে বিশ্বমানের তথ্য প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান হ্যাক করে তথ্য চুরির ঘটনা ঝুঁকির তালিকায় তৃতীয় স্থানে ফেলে দিয়েছে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close