লন্ডনে বঙ্গবন্ধুর ৯৯তম জন্ম-বার্ষিকী উদযাপন

ব্রিটেনের রাজধানী লন্ডনে বাংলাদেশ হাই কমিশন এবং যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের উদ্যোগে পৃথকভাবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্ম-বার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত হয়েছে। পূর্ব লন্ডনের ইমপ্রেশন ইভেন্ট সেন্টারে বাংলাদেশ হাই কমিশন আয়োজিত শিশু-কিশোরদের মিলন মেলা ১৭ মার্চ রোববার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্ম-বার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপিত হয়েছে। একই দিন পূর্ব লন্ডনের মাইক্রো বিজনেস সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা।

ইমপ্রেশন ইভেন্ট সেন্টারে চার থেকে চৌদ্দ বছর বয়সী বিপুল সংখ্যক ব্রিটিশ বাংলাদেশী শিশু-কিশোর ‘বঙ্গবন্ধু ও ব্রিটেন‘ শীর্ষক চিত্রাংকন ও রচনা প্রতিযোগিতা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেয়। বড়দের পাশাপাশি বেশ কয়েকটি শিশু বঙ্গবন্ধুর জীবন, কর্ম ও আদর্শ সম্পর্কে তাদের ধারণা ও অনুভূতি উপস্থান করে। যুক্তরাজ্যে জন্ম নেয়া ও বেড়ে ওঠা ওই শিশুরা বলে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধুর দেশের নাগরিক হিসেবে তারা গর্বিত। এসময় হলভর্তি শ্রোতা-দর্শক করতালির মাধ্যমে শিশু-কিশোরদের অভিবাদন জানান।

অনুষ্ঠানে যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার সাইদা মুনা তাসনীম বলেন, বঙ্গবন্ধুর জীবন, কর্ম ও আদর্শে অনুপ্রাণিত করার জন্যেই বাংলাদেশ হাই কমিশনের এই আয়োজন। তিনি শিশু-কিশোরদের বঙ্গবন্ধুর ধর্ম-বর্ণ ও জাতিভেদে মানুষের জন্য অপার ভালোবাসা, সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে অসীম সাহসী অবস্থান এবং দেশের জন্য সীমাহীন ত্যাগের আদর্শ অনুসরণের আহবান জানান।

আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রখ্যাত সাংবাদিক আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী ও যুক্তরাজ্যে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক সুলতান মাহমুদ শরীফ বক্তব্য রাখেন। তারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ অনুসরণ করে শিশু-কিশোরদের কল্যাণে সবাইকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে ভূমিকা রাখার আহবান জানান।

অনুষ্ঠানের শুরুতে মঞ্চে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে হাইকমিশনার লন্ডন মিশনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নিয়ে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকেও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানানো হয়। এরপর দিবসটি উপলক্ষে প্রদত্ত রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বাণী পাঠ করে শোনানো হয়।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে একদল শিশু-কিশোর গান ও নাচের সুর ও ছন্দে বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামী জীবন বিমূর্ত করে তোলে। শিশু-কিশোর ও অভ্যাগত অতিথিদের নিয়ে হাই কমিশনার বঙ্গবন্ধুর প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানিয়ে একটি কেক কাটেন এবং চিত্রাংকন ও রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে সনদ ও পুরস্কার বিতরণ করেন। শিশু-কিশোর, তাদের অভিভাবক ও আমন্ত্রিত অতিথিদের আপ্যায়নের মাধ্যমে বর্ণীল অনুষ্ঠানটির সমাপ্তি হয়।

এদিকে বঙ্গবন্ধু মেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৭ মার্চ রোববার পূর্ব লন্ডনের মাইক্রো বিজনেস সেন্টারে এই সভার আয়োজন করা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি সুলতান মাহমুদ শরীফ এবং পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক।

সভায় বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি জালাল উদ্দিন, শামসুদ্দিন আহমদ মাস্টার, নঈম উদ্দিন রিয়াজ, মারুফ চৌধুরী, সাজ্জাদ মিয়া, আব্দুল আহাদ চৌধুরী, শাহ শামীম আহমেদ, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপকমিটির সদস্য আয়শা খাতুন পপীসহ অনেকে। সভায় উপস্থিত নেতা-কর্মীরা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে এবং কেক কেটে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালন করেন।

সভায় বক্তারা বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক প্রজ্ঞা এবং জেল জীবন এবং মানুষের প্রতি ভালোবাসার কথা উল্লেখ করে বলেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাজ করে যাচ্ছেন। প্রবাসে সকলে ঐক্যবদ্ধভাবে শেখ হাসিনার সরকারকে সহযোগিতা করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তারা। সভায় দোয়া পরিচালনা করেন মাওলানা কুতুব উদ্দিন।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Close