১০০ বিলিয়ন ডলার ব্যয়েও মার্কিন নিয়ন্ত্রণে আসেনি আফগানিস্তান

মার্কিন বাহিনীর জন্য কোনো সুখবর নেই আফগানিস্তানে

বর্তমানে প্রায় ১৪ হাজার মার্কিন সেনা আফগানিস্তানে মোতায়েন রয়েছে। এছাড়া আফগান বাহিনীকে প্রচুর পরিমাণে সহায়তা করছে মার্কিন সরকার। এতে কমপক্ষে ১০০ বিলিয়ন ডলার ব্যয় হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের।

বিপুল ব্যয়ের পরেও তালেবান ও আল কায়েদা মোকাবেলায় আফগান বাহিনীর দুর্বলতা স্পষ্ট। এ সপ্তাহেও আফগানিস্তানে একটি চেক পয়েন্টে হামলা চালিয়েছে তালেবান যোদ্ধারা। দেশটির গজনী প্রদেশে সোমবার সকালে এ হামলা চালানো হয়। এতে আফগান সামরিক বাহিনী ও পুলিশের অন্তত ১৩ সদস্য নিহত হয়েছে।

গত বছরের এক জরিপে দেখা যায় আফগানিস্তানের ৬৬ শতাংশ এলাকায় তালেবান যোদ্ধাদের সরাসরি উপস্থিতি রয়েছে। সেখানে তাদের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠিত। দেশটিতে ১৬ বছরের বেশি সময় ধরে যুক্তরাষ্ট্রের সেনারা অবস্থান করছে। এ সময়ের মধ্যে ব্যয় হয়েছে ১০০ বিলিয়ন ডলার।

এক সমীক্ষায় দেখা যায় বেশিরভাগ জনগোষ্ঠীর বাস তালেবান নিয়ন্ত্রিত এলাকায়। সেখান থেকেই তাদের যুদ্ধ পরিচালনা থেকে সব রকমের কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

২০১১ সাল পর্যন্ত আফগানিস্তানে এক লাখ সেনা থাকলেও বর্তমানে ১৪ হাজার মার্কিন সেনা আফগানিস্তানে মোতায়েন রয়েছে। ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতারোহণের পর সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে অতিরিক্ত আরও ১০০০ সেনা পাঠানোর জন্য সুপারিশ করা হয়েছে। তবে এক লাখ সেনাও যখন তালেবান নিয়ন্ত্রণ করতে পারেনি, সে অবস্থায় কীভাবে সম্ভব ১৪ হাজার সেনা দিয়ে আফগানিস্তান নিয়ন্ত্রণের। বিশ্লেষকরা বলছে এটি কোনোভাবেই সম্ভব নয়। এ অবস্থায় মার্কিন বাহিনীর জন্য কোনো সুখবর নেই আফগানিস্তানে। -বিবিসি

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Close