সিলেটে ইভিএমে প্রতীকী ভোট প্রদর্শনীর আয়োজন

অংশ নেওয়া ভোটারদের ক্ষোভ

গতকাল শনিবার সিলেট নগরীতে ইভিএম সম্পর্কে সচেতনতা তৈরি করতে প্রদর্শনীর আয়োজন করে নির্বাচন কমিশন। প্রদর্শনীতে ইভিএমের মাধ্যমে প্রতীকী ভোটগ্রহণ করা হয়। ভোটগ্রহণকালে ইভিএমে নানা অসঙ্গতি দেখা দেয়। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেন প্রতীকী ভোট দিতে যাওয়া ভোটাররা।

সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তন প্রাঙ্গনে সকাল থেকে ৬টি বুথে নগরীর ১৭টি এলাকার ভোটারদের তথ্য সন্নিবেশিত করে এ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয় বলে জানান জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা খোরশেদ আলম। প্রদর্শনীতে ১০টি ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন রাখা হয় এবং নিয়ন্ত্রণ কক্ষসহ ছয়টি স্টল ছিল। রাত ৮টা পর্যন্ত এ প্রদর্শনী চলবে বলে জানান তিনি।

প্রতীকী ভোটে অংশ নেওয়া নগরীর দাড়িয়াপাড়া এলাকার ভোটার শহীদুল ইসলাম বলেন, ‘মেশিনে আমার ফিঙ্গার প্রিন্ট রিড হয়নি, অথচ ভোটার তালিকায় আমার নাম ও ভোটার নম্বার ছিল’। একই এলাকার মাধব কর্মকার স্মার্ট কার্ড নিয়ে গিয়েও ইভিএম এর তালিকায় নিজের নাম পাননি, কাজ করেনি তার ফিঙ্গার প্রিন্টও। তিনি বলেন, ‘আমার আগের নম্বার ও পরের নম্বার, দুটোই তালিকায় রয়েছে, কিন্তু আমার নম্বার তালিকায় পাওয়া যায়নি’।
এ ব্যাপারে জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা খোরশেদ আলম বলেন, সাধারণত একেকটি মেশিন সর্বোচ্চ ৫০০টি ভোট গ্রহণের জন্য, কিন্তু প্রদর্শনীর সুবিধার্থে ৪০০০ ভোটারের তালিকা এগুলোতে সন্নিবেশিত হয়েছে। তিনি বলেন, কিছু এলাকায় তার থেকে বেশি ভোটার থাকায় সব নাম তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়নি, তাই এ ধরনের সমস্যা হয়েছে। নির্বাচনে এ ধরণের সমস্যা হবে না।

এরআগে সকাল ১১ টায় প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. মোখলেসুর রহমান। এসময় তিনি বলেন, সিলেটের সাথে আজ দেশের আরও ৭টি অঞ্চলে একযোগে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) প্রদর্শনী চলছে। জাল ভোট, কেন্দ্র দখল করা, এবং রাত জেগে কেন্দ্র পাহারা দেওয়া এরকম অবস্থা থেকে উত্তরণ পাওয়ার জন্য ইভিএম’র বিকল্প নেই। ইভিএম’র প্রশংসা করে তিনি বলেন, রংপুরে ইভিএমের মাধ্যমে মাত্র ১৩ মিনিটের মাথায় রেজাল্ট দেয়া হয়েছে। এটি এমন একটি মেশিন প্রত্যেক ভোটারের আঙ্গুলের ছাপ কন্ট্রোল ইউনিটে সেভ করা থাকবে। নিজ নিজ এলাকার ভোটাররা ভোট দিতে পারবেন। অন্য কোন এলাকার লোক কোন ভাবেই ভোট দিতে পারবে না। তিনি বলেন, আগামী জাতীয় নির্বাচনে সীমিত আকারে এটা ব্যবহার করা হবে। ইভিএম ভোটিং সিস্টেমে কোন প্রকার ডিভাইস, অন্য কোন মেশিনের দ্বারা এটি নষ্ট করা যাবে না। খুব শিগগিরেই আরও বড় পরিসরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনে অত্যন্ত ঝাঁকজমকপূর্ণ পরিসরে ইভিএম ভোটিং মেশিনের প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। রেডিও, বেতার, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়াতে এর প্রচার আরও বাড়াতে হবে। সিলেট অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আলীমুজ্জামানের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ মেজবাহ উদ্দিন চৌধুরী, উপ-মহা পুলিশ পরিদর্শক মো. কামরুল আহসান পিপিএম, সিলেট জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম প্রমুখ।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Close