কানাডায় নিকাবের ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার

Niqabকানাডায় জাস্টিন ট্রুডুর নেতৃত্বাধীন নতুন সরকার নিকাব পরার অনুমতি প্রদানের ওপর নিষেধাজ্ঞা চেয়ে হাইকোর্টে যে আপিল করেছিল, তা প্রত্যাহার করে নিয়েছে। এর ফলে দেশটিকে নিকাব পরা নিয়ে জটিলতার অবসান ঘটল। বিশেষজ্ঞরা এটাকে নিকাবের জয় হিসেবে অভিহিত করেছেন।
কানাডার অ্যাটর্নি জেনারেল যদি উইলসন-রেবল্ড সোমবার বলেছেন, তিনি সুপ্রিম কোর্টকে জানিয়েছেন, সরকার আর ওই মামলাটি চালাতে চায় না।
তিনি অভিবাসনমন্ত্রী জন ম্যাককালামের সাথে দেয়া এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন, কানাডার বৈচিত্র্যই তার সবচেয়ে বড় শক্তি। যারাই নাগরিকত্ব পাবেন, তারাই কানাডা পরিবারে অন্তর্ভুক্ত হয়ে যাবেন। আমরা মনে করি, মতবিরোধে নয়, ঐক্যেই খুশি।
এর আগে জুনেরা ইসহাক নামের পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত এক মুসলিম নারী হিজাব পরার অধিকার আদায় করেছিলেন আদালত থেকে। তিনি তার চোখ দুটি ছাড়া পুরো দেহ ঢেকে রাখেন। আদালত এতে আপত্তিকর কিছু পায়নি। কিন্তু এর বিরুদ্ধে পূর্ববর্তী সরকার উচ্চতর আদালতে চ্যালেঞ্জ জানায়। কানাডার জাতীয় নির্বাচনের সামান্য আগে এই ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নির্বাচনে ব্যাপক প্রভাব ফেলে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
জুনেরা ২০০৮ সালে পাকিস্তান থেকে কানাডা যান। ২০১৩ সালে তিনি নাগরিকত্ব পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। কিন্তু মুখ খুলতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে শপথ গ্রহণ করতে দেয়া হয়নি। পরে তিনি আদালতের দ্বারাস্থ হলে তার পক্ষেই রায় যায়।
১৯ অক্টোবরের নির্বাচনের ১০ দিন আগে তিনি কানাডার নাগরিক হিসেবে শপথ গ্রহণ করেছেন।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close