কানাডার প্রধানমন্ত্রীর ইফতার পার্টি

CanadaPMমার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বেশ কয়েক বছর ধরে মুসলিম সম্প্রদায়ের সম্মানে ইফতার মাহফিলের আয়োজন করে আসছেন। এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উন্নয়নে মুসলিম সমাজের অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ ইফতারের আয়োজন করেছিলেন। তবে উত্তরের প্রতিবেশী কানাডার শীর্ষ নেতৃত্বের পক্ষ থেকে গত সোমবারের আগে কখনই মুসলিম সমাজের জন্য কোন ইফতারের আয়োজন করা হয়েছে বলে জানা নেই। এদিন কানাডার প্রধানমন্ত্রী স্টিফেন হারপার এক ইফতার পার্টির আয়োজন করেন যেখানে মুসলিম সমাজের ৪০ জনেরও বেশি ব্যক্তিত্বকে আমন্ত্রণ জানানো হয়। কট্টর ডানপন্থী নেতা রাজধানী ওটাওয়ার ২৪ নং সাসেক্স রোডে তার সরকারি বাসভবনে মুসলিম সমাজের নেতৃবৃন্দকে আহ্বান জানান ইফতারে।
তাদের উদ্দেশে হারপার বলেন, “এই ভবন সকল কানাডাবাসীর ঠিকানা। আমি আশা করবো, সকল কানাডাবাসী বিশেষ করে মুসলিম বন্ধু ও প্রতিবেশীরা আজ রাতে এই সৌহার্দ্য উপভোগ করবেন।”
এদিকে মুসলিম বিরোধী বলে পরিচিত স্টিফেন হারপারের এ ধরনের ইফতার আয়োজনে সমাজের নেতৃবৃন্দ যার পর নাই বিস্মিত।
তারা বলছেন, এটা তার নীতির পরিপন্থী, বিশেষ করে সম্প্রতি রক্ষণশীল বিলের পর-যাতে রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠানগুলোতে হিজাব নিষিদ্ধের আইন করা হয়েছে। ন্যাশনাল কাউন্সিল অব কানাডা মুসলিমস-এর নির্বাহী পরিচালক ইহসান গার্দি স্থানীয় আইপলিটিক্স গণমাধ্যমকে বলেন, ‘‘এ সিদ্ধান্ত অনেক কানাডীয় মুসলিমকে বিস্মিত করেছে যারা মুসলিম হবার কারণে সরকারি সিদ্ধান্তে সমাজের মূল ধারা থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন।”
তিনি বলেন, আমরা আশা করবো, এটা ভোট লাভের আশায় করা হয়নি, বরং সরকারে স্বর ও মনোভাব পরিবর্তনের বহিঃপ্রকাশ। অন্য মুসলিমরাও গার্দির মনোভাবের সাথে একমত পোষণ করেছেন।২০১১ সালের জরিপ অনুযায়ী কানাডায় মুসলিম জনসংখ্যা ১০ লাখ ৫৩ হাজার ৯৪৫ জন। এটা কানাডার মোট জনসংখ্যার মাত্র ৩ দশমিক ২ শতাংশ। জরিপ মতে, দেশটিতে ইসলাম হচ্ছে খ্রিস্ট ধর্মের পর সর্ববৃহৎ এবং তা সর্বাধিক দ্রুত বর্দ্ধনশীল ধর্মও বটে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close