জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক নিকোলাস সারকোজি

Nikolaসাবেক ফরাসি প্রেসিডেন্ট নিকোলাস সারকোজিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। ক্ষমতায় থাকার সময় তিনি প্রভাব বিস্তার করে একজন বিচারপতিকে উচ্চ পদ পাইয়ে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন বলে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে।
ফ্রান্সের একজন সাবেক প্রেসিডেন্টকে এভাবে আটকের ঘটনা নজিরবিহীন। এর আগে সোমবার এ মামলায় সারকোজির আইনজীবীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তদন্তকারী কর্মকর্তারা  জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সারকোজিকে ২৪ ঘন্টা আটক রাখতে এবং প্রয়োজনে আটক রাখার মেয়াদ একদিন বাড়াতে পারবেন।
সারকোজি ২০১৭ সালে ফ্রান্সের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার যে পরিকল্পনা করেছিলেন তাকে আটকের ঘটনায় তা চ্যালেঞ্জের মুখে পড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।
তদন্তকারী কর্মকর্তারা একথা জানার চেষ্টা করছেন যে, একজন সিনিয়র বিচারকের কাছ থেকে গোপন তথ্য পাওয়ার জন্য সাবেক প্রেসিডেন্ট তাকে মোনাকো’তে একটি সম্মানজনক কাজ পাইয়ে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন কিনা। এ ঘটনায় আপিল আদালতের শীর্ষ বিচারক গিলবার্ট আজিবার্টকেও সোমবার জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। এ ছাড়া, প্যাট্রিক স্যাসুস্ট নামের আরেক বিচারপতিকে আটক করা হয়েছে। নিকোলাস সারকোজি ২০০৭ সাল থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ছিলেন।
ফ্রান্সের ইতিহাসে এই প্রথম একজন সাবেক প্রেসিডেন্ট পুলিশের হাতে আটক হলেন। এর আগে অবশ্য সারকোজির পূর্ববর্তী প্রেসিডেন্ট জ্যাক শিরাককে অর্থ আত্মসাৎ ও বিশ্বাস ভঙ্গের অভিযোগে স্থগিত কারাদণ্ড দেয়া হয়েছিল। ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেয়ার আগে প্যারিসের মেয়র থাকা অবস্থায় শিরাক এসব অপরাধ করেছিলেন।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close