স্যামসাংয়ের সর্বাধুনিক ফাইভ-জি মোবাইল সেট এখন বাংলাদেশে তৈরী হচ্ছে

বাংলাদেশের প্রস্তুতকারকেরা আরেকটি বৈশ্বিক স্বীকৃতি পেতে যাচ্ছে। দক্ষিণ কোরিয়ার টেক জায়ান্ট স্যামসাং বাংলাদেশে তাদের সর্বাধুনিক নোট-২০ এবং নোট-২০ আল্ট্রা ফাইভ-জি মোবাইল সেট প্রস্তুতের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। গত ৫ আগস্ট এই মোবাইল হ্যান্ডসেট বিশ্বব্যাপী বাজারে ছাড়ার ঘোষণা দেয়া হয়, এটা পঞ্চম প্রজন্ম সেল্যুলার নোট ওয়ার্ক টেকনোলজির সাথে কাজ করতে পারবে, যা গ্রাহকদের প্রায়-সঠিক সময়ে মিথস্ক্রিয়া, দ্রুততম ইন্টারনেট, সাড়া দিতে কম সময় ক্ষেপণ এবং অনেকগুলো ডিভাইসের সাথে যুক্ত হওয়ার ক্ষমতা প্রদান, প্রায় ২৬-২৭ শতাংশ ভ্যালু এডিশন তৈরী করবে। পূর্ব বুকিং শুরু হয়েছে ১০ আগস্ট থেকে এবং সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তা অব্যাহত থাকবে।

ফাইভ-জি ডিভাইসের প্রথম ব্যাচের সংযোজন হবে নরসিংদী জেলায় ৩০ একর ভূমির উপর গড়ে ওঠা অত্যাধুনিক ফেয়ার ইলেক্ট্রোনিক্স-এর প্লান্টে, যা আগামী সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি নাগাদ বাজারে আসবে। কোম্পানী ফাইভ-জি সক্ষম যন্ত্রাদিতে চমৎকার তামাটে ও কালো বর্ণের সেটের দাম হবে ১ লাখ ৩৪ হাজার ৯শ’ ৯৯ টাকা, একজন গ্রাহক মাত্র ১ লাখ ১০ হাজার টাকায় এটা ক্রয় করতে পারবেন। পূর্বাহ্নে বুকিংয়ের ক্ষেত্রে গ্রাহকেরা ১৫ হাজার টাকা ডিসকাউন্ট বা মূল্যছাড় পাবেন। যদি তারা একটি স্যামসাং মোবাইল সেট বদল করেন, তবে তারা আরো ১০ হাজার টাকা ডিসকাউন্ট লাভ করবেন, এছাড়া ব্যবহৃত মোবাইল সেটের মূল্যও সাথে পাবেন। স্থানীয় সংযোজন শিল্পে কর্মকান্ড বাংলাদেশের পরিকল্পিত ২০২১ সালের মধ্যে ফাইভ-জি এর আগেই শুরু হবে।
ফেয়ার ইলেকট্রোনিক্স গত বছর স্যামসাং হ্যান্ডসেট সংযোজনের কাজ শুরু করে। ইতোমধ্যে এটা ২৫ লাখ ইউনিট সম্পন্ন করে ফেলেছে, যার অধিকাংশ ফোরজি-ক্ষমতা সম্পন্ন। এ বছর কোম্পানীটি ২৫ লাখ স্মার্ট ফোন সংযোজনের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছিলো। কিন্তু করোনাভাইরাস মহামারির দরুণ ২০ লাখ স্মার্টফোন সেট সংযোজনের লক্ষ্য গ্রহণ করেছে। স্থানীয় সংযোজনের দরুণ প্রতিটি মোবাইল সেটের দাম অন্তত: ৩৫ হাজার টাকা কম হবে। যদি এটা আমদানী করা হয়, তবে দাম পড়তো ১ লাখ ৬০ হাজার টাকারও বেশী।
স্যামসাংয়ের-এর স্থানীয় সংযোজন অংশীদার ‘ফেয়ার ইলেক্ট্রোনিক্স -এর চীফ মার্কেটিং অফিসার মোহাম্মদ মেসবাহ উদ্দীন বলেন, আমরা ফাইভ-জি ডিভাইস প্রস্তুত করছি এবং এতে দেখা যায়, বাংলাদেশ এখন যে কোন কিছু তৈরী করতে সক্ষম।
তিনি আরো বলেন, ফেয়ার ইলেকট্রোনিক্স-এর ওপর স্যামসাংয়ের পূর্ণ আস্থা রয়েছে এবং এতে এই ধারণা প্রতিষ্ঠিত হয় যে, দেশটি বিশ্বমানের সামগ্রী প্রস্তুত করতে সক্ষম।
যা-ই হোক, ফেয়ার ইলেক্ট্রোনিক্সের অন্য শীর্ষ সেট গ্যালাক্সি নোট-২০ আগামী মাসে বাজারে আসবে, যার মূল্য ৯৯ হাজার টাকা। গ্রাহকেরা ৮০ হাজার টাকায় এটা কিনতে পারবেন, যদি আগে বুকিং দিয়ে থাকেন। বাংলাদেশের এই সংযোজন প্লান্টের ১৫শ’ কর্মকর্তা কর্মচারীর ৯৫ শতাংশের বেশী বাংলাদেশী বলে জানা গেছে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close