তুর্কি আদালতের ঐতিহাসিক রায়

হাজিয়া সোফিয়া আবারো মসজিদে পরিণত হবে

তুরস্কের একটি আদালত বিশ্বখ্যাত সাংস্কৃতিক স্থান ইস্তাম্বুলের হাজিয়া সোফিয়া জাদুঘরের স্থিতাবস্থার আবেদন বাতিল করে দিয়ে বলেছে, এটি আবারো মসজিদে রূপান্তরিত করা যেতে পারে। শুক্রবার (১০ জুলাই) তুরস্কের শীর্ষ প্রশাসনিক আদালতে আনুষ্ঠানিকভাবে এই রায় পড়ে শুনানো হয়। এই রায়ে ১৯৩৪ সালের ক্ষমতাসীন তুর্কী সরকারের বিতর্কিত ফরমান (আয়াসোফিয়াকে মসজিদ থেকে জাদুঘরে রূপান্তরিত করণ) বাতিল বলে গণ্য করা হয়। দীর্ঘ প্রতীক্ষিত এই রায়ের ফলে ইস্তাম্বুলের বিখ্যাত স্থাপনা আয়াসোফিয়াকে মসজিদ হিসাবে ব্যবহারে আর কোনো আইনি বাধা থাকলো না। একটি ক্যাথেড্রাল হিসাবে ১,৫০০ বছর আগে প্রতিষ্ঠিত হাজিয়া সোফিয়াকে অটোমান শাসনামলে মসজিদে পরিণত করা হয়েছিল। পরে ১৯৩৪ সালে এটিকে ফের জাদুঘরে পরিণত করা হয়। এটি একটি ইউনেস্কো ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট। ইউনেস্কো এর আগে আলোচনা ছাড়া তুরস্ককে তার স্ট্যাটাস পরিবর্তন না করার আহ্বান জানিয়েছিল। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান এই পরিবর্তনের আহ্বান জানান।
১৪৫৩ সালে ইস্তাম্বুলে উসমানীয়দের বিজয়ের মাধ্যমে এটি একটি রাজকীয় মসজিদে রূপান্তরিত হয়েছিল। দীর্ঘ পাঁচশত বছর এটি ছিলো মুসলিম বিশ্বের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মসজিদ। এরপর ১৯৩৫ সালে কঠোর ধর্মনিরপেক্ষ একক-দলীয় শাসনকালে এই মসজিদটিকে যাদুঘরে রূপান্তরিত করা হয়। তবে তুরস্কের ইসলামপন্থীরা দীর্ঘদিন ধরে এটি মসজিদে রূপান্তরিত করার আহ্বান জানিয়ে আসছিলেন।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close