করোনাভাইরাস: ইস্ট লন্ডন মসজিদসহ লন্ডনের অনেক মসজিদ অস্থায়ীভাবে বন্ধ ঘোষণা

গতকাল বুধবার (১৮ মার্চ) পূর্ব লন্ডনের লন্ডন মুসলিম সেন্টারে কাউন্সিল অফ মস্ক টাওয়ার হ্যামলেটস উদ্যোগে কোভিড-১৯ বা করোনাভাইরাস সঙ্কটের আলোকে এলাকার মসজিদগুলিকে কী ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত সে বিষয়ে আলোচনা করার জন্য একটি জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়। কাউন্সিল অফ মস্ক টাওয়ার হ্যামলেটস এর চেয়ারম্যান মাওলানা শামসুল হকের সভাপতিত্বে উক্ত জরুরি সভায় রয়েল লন্ডন হাসপাতাল একজন সিনিয়র করোনা ভাইরাস গবেষক বিশেষজ্ঞ তথ্য ডাঃ উমর ইব্রাহিমসা (সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ এনএইচএস লন্ডন) ডাঃ উসমান দার (রয়েল কলেজ অফ ফিজিশিয়ান এর জনস্বাস্থ্য অনুষদের ফেলো) উপস্থিত ছিলেন। তারা উভয়ই করোনার ভাইরাসের হুমকিতে সরকারের চলমান প্রতিক্রিয়ার সাথে জড়িত। করোনারভাইরাসের হুমকি উপর তারা বিস্তারিত আলোচনা করেন, করোনার হুমকির ও ক্ষতির দিক গুলো তুলে ধরেন, আরো বলেন সাধারণত খুলা মেলা জায়গা থেকে মসজিদের ভিতর কয়েকগুন বেশি আক্রান্ত করে করোনা ভাইরাস, সে জন্য একটু বেশি সতর্ক থাকতে হবে এবং মসজিদ গুলো কিছুদিনের জন্য জনসাধারণের প্রবেশাধিকার স্থগিত করার পরামর্শ দেন l উক্ত অনুষ্টানে ইস্ট লন্ডন মসজিদের চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান, খতিব ও ইমাম শেখ আব্দুল কাইয়ুম, কাউন্সিল অফ মস্ক টাওয়ার হ্যামলেটস এর ট্রেজারার মোঃ আব্দুল মুনিম জাহেদী ক্যারল, আলহুদা মসজিদের খতিব মাওলানা আব্দুল কাদির সালেহসহ প্রায় পঞ্চাশটি মসজিদের প্রতিনিধি, ইমাম, স্কলার্স ও মসজিদ কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন l
চলমান সকল পরিস্তিতি বিবেচনা করে উপস্থিত সবার পরামর্শ ক্রমে কাউন্সিল অফ মস্ক টাওয়ার হ্যামলেটস এর পক্ষ থেকে সমস্ত মসজিদ কমিটির সদস্যদের নিম্নলিখিত পরামর্শ গুলি বাস্তবায়িত করার জন্য অনুরুধ জানানো হচ্ছে।
সরকারের সাম্প্রতিক পরামর্শের সাথে সামঞ্জস্য রেখে, আমাদের সম্প্রদায়ের চিকিৎসা পেশাদারদের কাছ থেকে এবং আমাদের ইমামগণ ইসলামী গবেষক, স্কলার এবং অন্যান্য মসজিদ ও কেন্দ্রগুলির সাথে পরামর্শক্রমে খুব সাবধানতার সাথে বিবেচনা করার পরে, জুম্মা সালাহে জনসাধারণের প্রবেশাধিকার স্থগিত করার জন্য কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছি (শুক্রবার জুম্মার নামাজ) ২০ মার্চ শুক্রবার থেকে।
বাকি নিয়মিত জামাতকারী সালাহের ব্যাপারে প্রতিটি মসজিদ কমিটিকে তাদের স্থানীয় কমিটির সাথে আলাপ কিরে প্রয়োজনীয় ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। আরো সুপারিশ করা হয় যে সবচেয়ে দুর্বল বয়স্ক গ্রুপের ব্যক্তিদের ঘরে বসে তাদের সালাহ পূর্ণ করা উচিত। এর মধ্যে যে ব্যক্তি অন্তর্ভুক্ত:
১. বয়স ৬০ এবং তারও বেশি।
২. ডায়াবেটিস রোগ নির্ণয় করা।
৩. দীর্ঘস্থায়ী হার্ট বা শ্বাসকষ্টের অবস্থা (যেমন হাঁপানি বা শ্বাসকষ্টের অন্যান্য সমস্যা)।
৪. উচ্চ রক্তচাপ।
৫. বর্তমানে ক্যান্সারে আক্রান্ত বা পুনরুদ্ধার হয়েছেন এবং যাদের ওজন বেশি।
যে মসজিদগুলি নিয়মিত জামাত সালাহে সর্বসাধারণের প্রবেশাধিকার অবলম্বন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেগুলি মসজিদে অল্প সময় সীমাবদ্ধ করা উচিত, সালাহর ১০ মিনিট আগে দরজা খোলার এবং সমস্ত উপস্থিত মুসল্লিদের ঘরে সুন্নাত ও নফল সালাত পড়তে উৎসাহিত করা উচিত।
উক্ত অনুষ্টানে ইস্ট মসজিদের চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান বলেন, সরকারের সাম্প্রতিক পরামর্শের সাথে সামঞ্জস্য রেখে, ইমামগণের সাথে পরামর্শ করে এবং মুসল্লিদের কথা বিবেচনা করার পরে, আমরা ইস্ট মসজিদে অস্থায়ীভাবে প্রবেশাধিকার স্থগিত করার জন্য কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছি l ১৯ মার্চ বৃহস্পতিবার থেকে সকল জামাত ও জুমুহাহ (শুক্রবারের নামাজ) সহ। এ ব্যাপারে আমরা নিয়মিত প্রচার করতে থাকব, ইনশাআল্লাহ। আমরা নিয়মিত পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে আমাদের ওয়েবসাইট এবং সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে পরবর্তী জামাত এর ব্যাপারে সবাইকে অবহিত করবো ইনশাআল্লাহ। মসজিদ এর সাথে সবার যোগাযোগ রাখার জন্য সকল ব্যবস্থাও নেয়া হবে এবং মসজিদ এর পক্ষ থেকে অসহায় ও দুর্বলদের কীভাবে সহায়তা করতে পারি সেদিকে আমরা নজর রাখছি। আল্লাহ্ আমাদের সকলকে এই পরীক্ষার সময়কে সহায়তা করুন; নামাজ, দুআ এবং কুরআন পাঠের মাধ্যমে নিষ্ঠার সাথে প্রত্যাবর্তন করা উচিত। বিস্তারিত তথ্যের জন্য ভিজিট করুন: https://www.eastlondonmosque.org.uk/news/temporary-closure-of-east-london-mosque-mar2020

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close