লন্ডনে যুক্তরাজ্য-আফ্রিকা বিনিয়োগ সম্মেলন

ইউকে-আফ্রিকা বিলিয়ন পাউন্ডের বাণিজ্য চুক্তি স্বাক্ষর

গতকাল সোমবার ইউকে-আফ্রিকা বিনিয়োগ সম্মেলনে আফ্রিকান বাজারগুলি থেকে ৬.৫ বিলিয়ন পাউন্ড এর বেশি ২৭ টি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। লন্ডনে যুক্তরাজ্য-আফ্রিকা বিনিয়োগ সম্মেলনের উদ্বোধনকালে ব্রিটিশ ও আফ্রিকান সংস্থাগুলি সোমবার ৬.৫ বিলিয়ন পাউন্ড বাণিজ্যিক ব্যবসার ঘোষণা দিয়েছে।

বাণিজ্যিক চুক্তিগুলি অবকাঠামো, শক্তি, খুচরা ও প্রযুক্তি সহ বিভিন্ন খাতে বিস্তৃত এবং যুক্তরাজ্য ও আফ্রিকা জুড়ে উচ্চমানের বিনিয়োগ, চাকরি এবং প্রবৃদ্ধি সরবরাহ করবে। তারা মাতালানের মতো সুপরিচিত ব্রিটিশ সংস্থাগুলি জড়িত হয়েছে যারা মিশ‌রে ১১ টি নতুন শপিং আউটলেট চালু করার জন্য ২৫ মিলিয়ন পাউন্ড বিনিয়োগের ঘোষণা দি‌য়ে‌ছে। জিএসকে মিশর এবং ডিয়াজিওর জন্য আরও ৫ মিলিয়ন পাউন্ড বিনিয়োগের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন এবং কেনিয়া ও পূর্ব আফ্রিকায় ১৬৭ মিলিয়ন পাউন্ড বিনিয়োগের ঘোষণা দিয়েছে।

আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মন্ত্রী লিজ ট্রস বলেছেন, আফ্রিকা যুক্তরাজ্যের ব্যবসার জন্য একটি বিশাল সুযোগের প্রতিনিধিত্ব করে, তাই এতগুলি ব্রিটিশ সংস্থা আজ এই অঞ্চলে বাণিজ্য চালিয়ে যাওয়ার, কর্মসংস্থান সৃষ্টির এবং গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামোকে উন্নয়নের জন্য বাণিজ্য করার এবং বিনিয়োগের ‌সিদ্ধান্ত নি‌য়ে‌ছে। আমরা চাই যে যুক্তরাজ্য আফ্রিকান দেশগুলির জন্য পছন্দের বিনিয়োগের অংশীদার হোক এবং অর্থ, প্রযুক্তি ও উদ্ভাবনের ক্ষেত্রে আমাদের বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় দক্ষতা, ইউকে এবং আফ্রিকাকে সমৃদ্ধির জন্য স্বাভা‌বিক অংশীদার করে তুল‌বে। ঘোষিত চুক্তিগুলি ইউকে-আফ্রিকা বাণিজ্যের বিপুল সম্ভাবনা দেখায় এবং আমরা যে কর্মসূচি ঘোষণা করেছি তা ইউকে এবং আফ্রিকান ব্যবসায়ীরা বর্তমান ও ভবিষ্যতে বাণিজ্য এবং বিনিয়োগের সুযোগগুলিকে পুঁজি করতে সক্ষম হবে তা নিশ্চিত করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ হবে।

উল্লেখ্র, ইউকে-আফ্রিকা  বিনিয়োগ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন উপস্থিত যোগ দিয়ে  ১৬ জন আফ্রিকান নেতার সঙ্গে মিলিত হন। একে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে ব্রিটেনের বের হওয়ার পর নতুন বাণিজ্যিক অংশীদার খোঁজার উদ্যোগ হিসেবে দেখা হচ্ছে।
কয়েক দশকের সম্পৃক্ততা শেষে ইইউ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে বেরিয়ে যাওয়ার আর মাত্র দুসপ্তাহেরও কম সময় বাকী। এ সময়েই লন্ডনে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হলো ইউকে-আফ্রিকা ইনভেস্টমেন্ট সাম্মিট।
এর আগে সাবেক প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে ২০১৮ সালে আফ্রিকার সাব-সাহারার দেশগুলি সফর করেন। যা ছিল পাঁচ বছরের মধ্যে যুক্তরাজ্যের কোনো নেতার প্রথম আফ্রিকা সফর।
মিশরের প্রেসিডেন্ট আব্দেল ফাত্তাহ আল-সিসি ও কেনিয়ার উহুরু কেনিয়াতাসহ ২১ টি দেশের ১৬ জন নেতা সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন। নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুহাম্মাদু বুহারি এবং ঘানার নেতা নানা আকুফো- আড্ডোও সম্মেলনে অংশ নেন। ১০ ডাউনিং স্ট্রিট বলেছে, জনসন আফ্রিকান নেতা ও বড় কোম্পানীর নির্বাহীগণকে ব্রিটেনকে তাদের বিনিয়োগ অংশীদার করার প্রস্তাব করেন।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন...

Close
Back to top button
Close